আজকের বার্তা | logo

৩রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৭ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং

ঋতুমতী নারীরা জরায়ু ফেলে দিচ্ছেন ভারতে! কিন্তু কেন?

ঋতুমতী নারীরা জরায়ু ফেলে দিচ্ছেন ভারতে! কিন্তু কেন?

ভারতের পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্য মহারাষ্ট্রের হাজার হাজার নারী অস্ত্রোপচার করে তাদের জরায়ু ফেলে দিচ্ছেন। জরায়ু ফেলে দেয়া এই নারীদের মধ্যে অল্পবয়সী তরুণীরাও রয়েছেন। সম্প্রতি দুটি প্রতিবেদনে এ সংক্রান্ত তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। কিন্তু কেন এ ধরনের কাজ করতে বাধ্য হচ্ছেন নারীরা? আসুন জেনে নিই…

ভারতীয় সংস্কৃতিতে মাসিক বা রক্তস্রাব একটি ট্যাবু হিসেবে চালু রয়েছে । মাসিকের সময় নারীদের অপবিত্র ও ধর্মীয় কাজে অংশগ্রহণের অনুপযোগী বিবেচনা করা হয়। তবে সম্প্রতি এই গৎবাঁধা ধারণাকে শহুরে শিক্ষিত নারীরা চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলেছেন।

সম্প্রতি প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভারতে ঋতুস্রাব নিয়ে নারীদের সংকট বা ভোগান্তি বেড়েই চলেছে। আখের ক্ষেতে ভাড়াটে শ্রমিক হিসেবে কাজ করার সুবিধার্থেই অনেক নারী নিজেদের জরায়ু ফেলে দিচ্ছেন।ওসমানাবাদ, সাংলি ও সোলাপুরসহ আরও কিছু জেলা থেকে দরিদ্র পরিবারের হাজার হাজারো মানুষ যেখানে প্রচুর পরিমাণে আখের ক্ষেত রয়েছে সেসব জেলায় আখ কাটার শ্রমিক হিসেবে কাজ করতে যান। সেখানে নারীরা স্থানীয় ঠিকাদারদের শোষণ ও নিপীড়নের শিকার হন। এমনকি তারা নারীদেরকে নিয়োগ দিতেও গড়িমসি করেন। তারা অজুহাত হিসেবে বলেন, মাসিকের সময়ে নারীরা আখ কাটার শ্রমসাধ্য কাজ করতে পারবেন না।

শুধু তাই নয়, পিরিয়ডের সময় ব্যথার কারণে কোনও নারী কাজে যোগ দিতে না পারলে তাদের মজুরী কাটা যায়। আখ শ্রমিক হিসেবে যারা কাজ করতে দূর-দূরান্তে যান তাদের বসবাসের পরিস্থিতি খুবই শোচনীয়। মাঠের কাছাকাছিই তাঁবুতে তাদের দিনযাপন করতে হয়। এমনকি অনেক যায়গায় শৌচাগারও থাকে না। আখ কাটার ভর-মৌসুমে রাতেও কাজ করতে হয়। তাই, কে কখন ঘুমাতে যাবে, কখন উঠবে তার কোনও ইয়ত্তা নেই।

Share Button


দৈনিক আজকের বার্তা

প্রকাশক: মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক: কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল

যোগাযোগ

ঠিকানা: ৫২৫ ফজলুল হক এভিনিউ (কাকলীর মোড়), বরিশাল।
বাণিজ্যিক বিভাগ: 043163954
মোবাইল: 01916582339

Website Design & Developed By

আজকের বার্তার প্রকাশিত-প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।