চরফ্যাশনে ৬ লাখ টাকার জমি ২২ হাজার টাকায় বিক্রি!

প্রকাশিত: ৫:১১ অপরাহ্ণ, মার্চ ১১, ২০২০

চরফ্যাশন উপজেলার আহম্মদপুর মৌজার তৎকালীন ৬ লাখ টাকার জমি ২২ হাজার টাকা ক্রয়মূল্য দিয়ে বিক্রির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে সরকারকে ফারুক ফরাজী রাজস্ব ফাঁকির অভিযোগ স্থানীয়দের।

জানা যায়, উপজেলার আহম্মদপুর মৌজার মো. হোসেন মুন্সি থেকে সোয়া ৭ শতাংশ জমি ২০১৪ সালে মূল্য ছিল ৬ লাখ টাকা। কিন্তু আহম্মদপুর গ্রামের হাসেম ফরাজীর ছেলে ফারুক ফরাজী ওই জমি ৬৬ বছরের বৃদ্ধ মো. হোসেন মুন্সির কাছ থেকে ১৯ নভেম্বর /২০১৪ তারিখে চরফ্যাশন সাব-রেজিষ্টার অফিসে ৫৫২০নং এ দলিলে সাব কবলা করে নিয়েছেন। বৃদ্ধের পরিবারে ৮ ছেলে সন্তান রয়েছেন। ও

ই ছেলেদের নিজস্ব কোন বসবাস করার মত জমি নেই। ফলে এখন সর্বশেষ সম্বলটুকু হারিয়ে তারা দিশেহারা হয়ে সমাজপতিদের কাছে ধর্না দিতে শুরু করেছেন। হোসেনের পরিবারের অভিযোগ ফারুক ফরাজী কৌশলে বৃদ্ধ হোসেনকে ভুল বুঝিয়ে এই জমি ক্রয় করেছেন। হোসেন এর পরিবার জানায়, ফারুক ফরাজীর কাছ থেকে ওই জমির মধ্যে এখন ৫ লাখ টাকা রয়েছে। তারা ঘোরা-ঘুরি করছেন। প্রভাবশালী ফারুক ফরাজী স্থানীয় সন্ত্রাসী দিয়ে হোসেন এর পরিবারকে ভয়ভীতি দেখিয়ে হুমকি দিচ্ছেন। স্

থানীয়রা বলেন, হোসেন মুন্সির সন্তানগণ এখন খুবই অসহায় অবস্থায় মানবেতর জীবন-যাপন করছেন। তারা সরকার তথা সামাজিক ভাবে বিচার দাবী করছেন।

Share Button