বিচারককে বদলি বিচার ব্যবস্থার জন্য অশনি সঙ্কেত: টিআইবি

প্রকাশিত: ৮:০৯ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ৫, ২০২০

আওয়ামী লীগ নেতাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশের পর পিরোজপুরের বিচারককে বদলি বিচার ব্যবস্থার জন্য অশনি সঙ্কেত বলে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)।

দুর্নীতির মামলায় পিরোজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সদস্য আউয়াল ও তার স্ত্রী লায়লা পারভীনের জামিনের আবেদন নাকচ করে গত মঙ্গলবার দুপুরে তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশে দিয়েছিলেন জেলা জজ আব্দুল মান্নান।

এরপর পিরোজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আউয়ালের সমর্থকদের বিক্ষোভ-ভাংচুরের প্রেক্ষাপটে জজ আব্দুল মান্নানকে বদলি করা হয়।

বিকালে পিরোজপুরের ভারপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজের দায়িত্ব নিয়ে নাহিদ নাসরিন আওয়ামী লীগ নেতা আউয়াল ও তার স্ত্রীকে জামিন দেন।এই ঘটনাকে বিচার বিভাগের উপর সরকারের হস্তক্ষেপের প্রমাণ হিসেবে দেখাচ্ছে বিএনপি। হাই কোর্টও এই বদলি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে।

টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ইফতেখারুজ্জামান বুধবার এক বিবৃতিতে বলেন, দুদকের মামলায় জেলা ও দায়রা জজ কর্তৃক ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দলের সাবেক সাংসদ ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং তার স্ত্রীর জামিন নামঞ্জুরকে কেন্দ্র করে, তাৎক্ষণিকভাবে সংশ্লিষ্ট বিচারককে ওএসডি ও বদলি করে মন্ত্রণালয়ে সংযুক্ত করা এবং কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে ভারপ্রাপ্ত জজ কর্তৃক জামিন মঞ্জুরের ঘটনা অভূতপূর্ব। যা দেশে আইনের শাসন, ন্যায় বিচার ও জবাবদিহিমূলক গণতন্ত্রের পথ রুদ্ধ করার এক ভয়াবহ দৃষ্টান্ত হিসেবে বিবেচিত হবে।

টিআইবির নির্বাহী পরিচালক আরও বলেন, এই ঘটনা আদালতের উপর নির্বাহী বিভাগ ও রাজনৈতিক প্রভাবের ব্যাপক বিস্তার, প্রভাবশালীদের হাতে আইনের শাসনের জিম্মি হওয়া ও বিচারহীনতার সংস্কৃতিকে ক্রমাগত বিকাশে তৎপর স্বার্থান্বেষী মহলকে আরও ক্ষমতায়িত করবে।

সরকারের রাজনৈতিক নেতৃত্বের প্রতি এ ধরনের ‘আত্মঘাতী পথ’ ছেড়ে করে বিচার বিভাগকে ‘বাস্তবেই স্বাধীন’ করার উপযোগী কার্যকর পথ অনুসরণের আহ্বান জানান ইফতেখারুজ্জামান।

Share Button