দৌলতখানে কালা পোল ব্রিজ এখন মরণ ফাঁদ: ভোগান্তিতে এলাকাবাসী

প্রকাশিত: ২:০৮ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০২০

ভোলার দৌলতখানে কালা পোল ব্রিজটি এখন মরণফাঁদে পরিণত হয়েছে। উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস ৩০ বছর আগে এ ব্রিজটি নির্মাণ করে। এরপর মেরামত না হওয়ায় ব্রিজটি এখন পরিণত হয়েছে মরণ ফাঁদে।

সিমেন্টের ঢালাই দেওয়া স্লিপারগুলোর বেশির ভাগই ভেঙে পরে রড বেরিয়ে এসেছে। ব্রিজের রেলিং এর অ্যাঙ্গেলগুলো মরিচা ধরে ভেঙ্গে পরে ব্রিজটি ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। কাঠের তক্তা বসিয়ে কোন রকম যান-চলাচল করলেও সপ্তাহ পার না হতেই পুনরায় সেই আগের অবস্থায় ফিরে আসে।

উপজেলার চরখলিফা ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের দিদারউল্লাহ গ্রামের মিঝি-গো এলাকার খালের ওপর থাকা এঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজটি দিয়ে প্রতিদিন চরপাতা হাই স্কুল, মিয়ার হাট ল্যাবেটারী হাই স্কুল,এম.আর আইডিয়াল স্কুল সহ ১০/১২ টি মাধ্যমিক ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীসহ সহ উপজেলার চরপাতা, চরখলিফা ইউনিয়নের শত শত মানুষ দুর্ঘটনার শঙ্কা মাথায় নিয়ে চলাচল করছেন। ব্রিজ দিয়ে পারাপারের সময় প্রায়ই স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীরা দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। বিপাকে পড়ছেন অটোবাইক, মোটরসাইকেল, টেম্পো, ব্যাটারি চালিত বোরাক ও ভ্যানসহ চলাচলকারী যাত্রীরা।

ব্রিজের কাছে বসবাসরত ফাহিমা জানান, ৬ মাস পূর্বে দুপুরেআমার ননদসহ ৮ জন যাত্রী ওই ব্রিজের উপর দিয়ে যাওয়ার সময় একটি ব্যাটির চালিত বোরাক উল্টো পরে পুকুরে পরে যায়। এতে করে ঘটনাস্থলে রিগান নামের আমার ননদের শিশুর মৃত্যু হয়।এছাড়াও প্রতি মাসেই ব্রিজটিতে ঘটছে দুর্ঘটনা।

স্থানীয়রা জানান, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস ৩০ বছর আগে মিঝি-গো এলাকার খালের ওপর এ কালা পোল ব্রিজ নির্মাণ করে। বর্তমানে সংস্কারের অভাবে ব্রিজটি ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। প্রতিদিন ঝুকি নিয়ে এ ব্রিজ দিয়ে বিভিন্ন স্কুল কলেজের শিক্ষার্থী সহঅত্র এলাকা এবং আসে পাশের এলাকারশত শত লোক যাতায়াত করছে।

সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্য মো. মনিরুল ইসলাম জানান,কালা পোল ব্রিজটি জনগুরুত্বপূর্ণ। তাই ব্রিজটি পুননির্মাণ করা খুবই জরুরি। এই ব্রিজটি সংস্কার না করায় প্রায় দুর্ঘটনার শিকার হয় মানুষ। কিছুদিন আগেও এই ব্রিজ থেকে দুর্ঘটনায় একটি শিশু মারা গেছে।

এ বিষয় দৌলতখান উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা এইচ এম আনসার জানান, কালা পোল ব্রিজটি পুননির্মাণের জন্য ২০১৯-২০ অর্থবছরেপ্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। এখনও অনুমোদন হয়ে আসেনি। অনুমোদন হলেই কাজ শুরু করা হবে।

Share Button