আজকের বার্তা | logo

২৫শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ৯ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং

সাকিব ছাড়া টেস্টের বাংলাদেশ যেন ‘তবলা ছাড়া গান’

সাকিব ছাড়া টেস্টের বাংলাদেশ যেন ‘তবলা ছাড়া গান’

অবাক করা সত্য, ভারতের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের মতো তার টেস্ট পরিসংখ্যানও আহামরি নয়। কুড়ি ওভারের ক্রিকেটে ৬ ম্যাচে মাত্র ৬২ রান, সর্বোচ্চ ২২। আর বল হাতে উইকেট মাত্র ৪টি, সেরা বোলিং ১/১৫। টেস্ট ক্রিকেটে ৬ ম্যাচের ১০ ইনিংসে রান মাত্র ২৬০। সেঞ্চুরি নেই, সর্বোচ্চ ৮২, হাফসেঞ্চুরি এই একটিই। আর বোলিংয়ে ৬ টেস্টে ১৫ উইকেট, ৫ উইকেট একবার।তাতে কী? তিনি যে সাকিব আল হাসান! বাংলাদেশের ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় বিজ্ঞাপন, ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর। টিম বাংলাদেশের সেরা অলরাউন্ডার, সেরা পারফরমার। বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসেরও সফলতম পারফরমার।

টি-টোয়েন্টি সিরিজ শেষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ দরজায় কড়া নাড়ছে। রাত পোহালেই ভারতের ইন্দোরের হলকার স্টেডিয়ামে প্রথম টেস্ট। ম্যাচ শুরুর সময় যত ঘনিয়ে আসছে, বাংলাদেশ ভক্ত ও সমর্থকদের মনে দুটি প্রশ্ন ততই জোরালো হচ্ছে। প্রথম প্রশ্ন, কী করবে টাইগাররা? বিরাট কোহলির নেতৃত্বে পুরোশক্তির ভারতের সঙ্গে কুলিয়ে উঠতে পারবে মুমিনুল হকের দল?

দ্বিতীয় প্রশ্ন, সাকিব আল হাসানের অভাব পূরণ হবে কী? টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে সাকিব ছাড়া নিদাহাস ট্রফির ফাইনালে ওঠা সম্ভব হয়েছিল। কিন্তু সাকিব ছাড়া টেস্ট সিরিজে পরাশক্তি ভারতের মুখোমুখি হওয়া যে অনেক কঠিন। ব্যাট ও বল হাতে তিন ফরম্যাটের সমান কার্যকর সাকিব যে টেস্টে আরও বেশি দরকারি পারফরমার।

তার ব্যাট ও বল যে দীর্ঘ পরিসরের ফরম্যাটে দলের সেরা সম্পদ। এমন এক অতি কার্যকর ও গুরুত্বপূর্ণ অলরাউন্ডার পারফরমারকে ছাড়া বাংলাদেশ যে ‘তবলা ছাড়া গান’। তবলা ছাড়া উপমহাদেশীয় সঙ্গীত যেমন অচল, সাকিব ছাড়াও যে টেস্টে বাংলাদেশকে কল্পনা কঠিন।তার অভাব পূরণ হবে কী? সাকিব কত বড় অলরাউন্ডার?- তা বিশ্ব জানে। প্রায় এক যুগ নামের পাশে কোন না কোন ফরম্যাটে আবার কখনো সব ফরম্যাটেই বিশ্ব সেরা অলরাউন্ডারের তকমা গায়ে। আর তিনি যে বাংলাদেশ দলের প্রাণভোমরা, চালিকাশক্তি- সেটাও প্রতিষ্ঠিত সত্য। সেটা নামে নয়। তার পারফরমেন্স আর পরিসংখ্যানই তা বলে দিচ্ছে।বাড়তি কিছু ঘাটঘাটি করার দরকার নেই। টেস্ট, ওয়ানডে আর টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে বাংলাদেশের সেরা পারফরমারদের তালিকায় একবার চোখ বুলিয়ে নিলেই বোঝা যাবে সাকিব কত ভালো পারফরমার।

আসুন এক পলক দেখে নেই। বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের মধ্যে টেস্টে রান তোলায় সাকিব তৃতীয় (৫৬ টেস্টে ৩৮৬২ রান। সেঞ্চুুরি ৫টি, হাফ সেঞ্চুুরি ২৪ টি)। তার ওপরে শুধু তামিম ইকবাল (৫৮ টেস্টে ৪৩২৭, সেঞ্চুুরি ৯টি, হাফ সেঞ্চুুরি ২৭টি) আর মুশফিকুর রহিম ৬৭ টেস্টে ৪০২৯ রান, ৬ সেঞ্চুরি ও ২৯ ফিফটি )।

ওয়ানডেতেও রান তোলায় তামিম শীর্ষে তামিম (২০৪ খেলায় ৬৮৯২ রান, শতক ১১ ও অর্ধশতক ৪৭)। দ্বিতীয় সাকিব ২০৬ খেলায় ৬৩২৩ রান, শতক ৯টি ও হাফ সেঞ্চুরি ৪৭টি। টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে রান তোলায় সাকিব সবার ওপরে (৭৬ খেলায় ১৫৬৭)। তামিম (৭১ ম্যাচে ১৫৫৬), মাহমুদউল্লাহ (৮৩ খেলায় ১৪৩০) ও মুশফিক (৮৪ খেলায় ১২৬৫) তার পরে।

আর টেস্টে সর্বাশিক উইকেট শিকারী সাকিব (৫৬ টেস্টে ২১০ উইকেট)। ওয়ানডেতে মাশরাফির (২১৫ খেলায় ২৬৫) পরে দুই নম্বরে সাকিব (২০৬ ম্যাচে ২৬০) এবং টি-টোয়েন্টিতে ৭৬ খেলায় ৯২ উইকেট শিকার করে প্রথম সাকিব।

Share Button


দৈনিক আজকের বার্তা

প্রকাশক: মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক: কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল

যোগাযোগ

ঠিকানা: ৫২৫ ফজলুল হক এভিনিউ (কাকলীর মোড়), বরিশাল।
বাণিজ্যিক বিভাগ: 043163954
মোবাইল: 01916582339

Website Design & Developed By

আজকের বার্তার প্রকাশিত-প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।