আজকের বার্তা | logo

২৯শে আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৪ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং

কার জন্য ভাতা দেয় সরকার: শতবর্ষী চান ভানুর ভাগ্যে জোটেনি বয়স্কভাতা

কার জন্য ভাতা দেয় সরকার: শতবর্ষী চান ভানুর ভাগ্যে জোটেনি বয়স্কভাতা

মেজবাহউদ্দিন মাননু, কলাপাড়া প্রতিনিধি ॥ শতবছর পার করেছেন বহু আগেই। এখন আর শ^াস চলে না, বেঁচে আছেন ঊর্ধ্বশ^াস নিয়ে। নাম চান ভানু, কেউ কেউ গুনাবানুও ডাকেন। পরিবারের দাবি চান ভানুর বয়স ১৩৬ বছর। পড়শিদের দাবি ১১০। শরীরের চামড়া শুধু কুচকে নয়; ঝুলে গেছে। হাড্ডিসার শরীর। চরম দারিদ্র্য চেপে আছে পরিবারে। এ বয়সেও বিধবা চানভানুর ভাগ্যে জোটেনি বয়স্ক ভাতা। তাহলে গ্রামের কারা এ ভাতা পাচ্ছেন?- এমন প্রশ্ন এখন এ প্রতিবেদকসহ সকলের মাথায় ঘুরপাক পাচ্ছে। কোনোমতে হাত ধরে ছেলে বউ, নাতি-নাতনি বিছানা থেকে তুলে এনে উঠানে বসান অশীতিপর বৃদ্ধা এ মানুষটিকে। জীবনের অনেক গল্প ছিল। গল্পের ছলেই জীবনের ঘটনা বলেছেন সংসারের সকলের কাছে। এখনও উচ্চস্বরে বললে সম্বিৎ ফিরে পান এ বৃদ্ধা মানুষটি। তিন ছেলে, তিন মেয়েসহ নাতি-নাতনি ও তাদের সন্তান নিয়ে বর্তমানে এদের সংখ্যা ৮৮ জন। জানালেন ৪ পয়সা সের দরে চাল কিনে খেয়েছেন। এখনও কোনোমতে একবেলা একমুঠো ভাত খান মানুষটি। এক যুগ ধরে বিছানায় পড়েছেন। চরম অভাবের সংসারে শ্রমজীবী ছেলে আইয়ুব আলী কাজী আর ছেলে বউ রওশন আরা বেগম পরিচর্যা করেন। ছেলের বয়সও ৮০ হয়েছে। তারপরও মাটিকাটা থেকে যে কাজ পান তাই করছেন। এই ভরসা সংসারের। বৃদ্ধা এ মানুষটি স্বামী আশন আলীকে হারিয়েছেন আরও ৩০ বছর আগে। পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার ডালবুগঞ্জ ইউনিয়নের সুখডুগী গ্রামের বাসিন্দা বৃদ্ধা চান ভানুর ভাগ্যে বয়স্কভাতা না জোটার খবরটিই এখন খবরে পরিণত হয়েছে। যেন অসম বণ্টনের একটি উৎকৃষ্ট উদাহরণ। প্রশ্ন জেগেছে, তাহলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাদের জন্য দিচ্ছেন বয়স্কভাতা? শতবর্ষী চানভানুর ভাগ্যে জীবদ্দশায় বয়স্কভাতা জুটবে কি-না তা ছেলে বউ ভাবতে পারছেন না। কারণ সবসময় শয্যাশায়ী এ মানুষটি কখন পরপারের ডাক পাবেন এমন শঙ্কায় কাটছে একেকটি মুহূর্ত। বয়স্ক ভাতার সহায়তা পেলে মানুষটি ওষুধপত্র কিনতে পারতেন। পারতেন ভালোমন্দ কিছু কিনে খেতে। ওই এলাকার মহিলা মেম্বার নাজমা বেগম জানান, বিষয়টি বিবেচনায় রয়েছে। তবে বয়স্ক মানুষ, তার টাকা তোলায় ঝামেলা তাই ছেলের নামটি দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া আছে। তারপরও অশীতিপর বৃদ্ধা চানভানুর জীবন সায়াহ্নে দরকার একটু ভালোমন্দ দুবেলা খাওয়ার জন্য বিশেষ সহায়তা।

Share Button


দৈনিক আজকের বার্তা

প্রকাশক: মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক: কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল

যোগাযোগ

ঠিকানা: ৫২৫ ফজলুল হক এভিনিউ (কাকলীর মোড়), বরিশাল।
বাণিজ্যিক বিভাগ: 043163954
মোবাইল: 01916582339

Website Design & Developed By

আজকের বার্তার প্রকাশিত-প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।