আজকের বার্তা | logo

১৫ই চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২৯শে মার্চ, ২০২০ ইং

কাজ শেষের আগেই উঠে যাচ্ছে রাস্তার পিচ

কাজ শেষের আগেই উঠে যাচ্ছে রাস্তার পিচ

দিনাজপুর বীরগঞ্জে দেড় কিলোমিটার নতুন সড়ক নির্মাণের কাজ শেষ হওয়ার আগেই পিচ উঠে যাচ্ছে। ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগে সড়ক নির্মাণের কাজ বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন বীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ইয়ামিন হোসেন। বীরগঞ্জ উপজেলার শতগ্রাম ইউপি’র ঝাড়বাড়ী কলেজ মোড় থেকে কেডিএস বাজার পর্যন্ত দেড় কিলোমিটার নতুন সড়ক নির্মাণে এ অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে।

বৃহস্পতিবার সকালে সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, কেডিএস বাজার এলাকায় সড়ক তৈরির কাজ চলছে। গত মঙ্গলবার কিছু সড়কের পিচ ঢালাই কাজ শেষ হয়েছে। কিন্তু পিচ ঢালাইয়ের ৩ দিন মাথায় সড়ক থেকে পিচ উঠে যাচ্ছে। ইটের খোয়া সরে যাচ্ছে। স্থানীয়রা সড়কের বালু, খোয়া-পিচ হাত দিয়েই উঠে যাচ্ছে।

কেডিএস মোড়ের একজন মুরব্বী আব্দুল সাত্তার তিনি বলেন, এই সড়ক তৈরিতে নিম্নমানের ইট দিয়েছে এবং ইটের খোয়াগুলো ভালোভাবে দেয়া হয়নি।
কেডিএস মোড়ের আরেক ভ্যানচালক মো. নজরুল ইসলাম বলেন, আমি এই সড়কে সবসময় ভ্যান নিয়ে চলাচল করি। আমি দেখেছি, তারা এখানে নিম্নমানের কাজ করছে। এখানে ছোট একটি ব্রিজের পূর্ব পাশে দেখেছি রোলার দিয়েছে কিন্তু কাজটি ভালোভাবে হয়নি।

আব্দুল মান্নান নামে একজন বলেন, সড়কের বালু ভালোভাবে দেয়নি এবং একবার মাত্র রোলার দিয়েছে। এ ব্যাপারে ওই সড়কের নির্মাণ ঠিকাদার হাবিব হোসেন জানান, কিছু কাজ হয়েছে। বৃহস্পতিবার উপজেলা নির্বাহী অফিসার কাজ বন্ধের নির্দেশ দিয়ে এ কাজের এস্টিমেট নিয়ে কথা বলতে বলেছেন।

বীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ইয়ামিন হোসেন বলেন, সড়ক নির্মাণে পিচ ঢালাইয়ের পর এমনিতেই পিচ উঠে যাচ্ছে। স্থানীয়রা বারবার এ ব্যাপারে ঠিকাদারকে বললেও শোনেননি। এরপর বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে ঘটনাস্থলের নির্মাণধীন সড়ক পরিদর্শন করে অনিয়ম দেখে ঠিকাদারকে কাজ বন্ধ রাখতে বলেছি।

Share Button


দৈনিক আজকের বার্তা

প্রকাশক: মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক: কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল

যোগাযোগ

ঠিকানা: ৫২৫ ফজলুল হক এভিনিউ (কাকলীর মোড়), বরিশাল।
বাণিজ্যিক বিভাগ: 043163954
মোবাইল: 01916582339

Website Design & Developed By

আজকের বার্তার প্রকাশিত-প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।