আজকের বার্তা | logo

৮ই আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং

গণধর্ষণের প্রধান আসামি গুলিবিদ্ধ অবস্থায় গ্রেপ্তার

গণধর্ষণের প্রধান আসামি গুলিবিদ্ধ অবস্থায় গ্রেপ্তার

ঝিনাইদহে গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামিকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। টাঙ্গাইলে শিক্ষার্থীকে বলাৎকারের অভিযোগে এক মাদ্রাসার আবাসিক শিক্ষককে জেলহাজতে পাঠিয়েছেন আদালত। এ ছাড়া ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে এক বখাটেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আমাদের প্রতিনিধিদের খবর-ঝিনাইদহ : সপ্তম শ্রেণির স্কুলছাত্রী গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি বাদশাকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল বুধবার সকালে সদর উপজেলার খাজুরা এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি মিজানুর রহমান খান জানান, ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি বাদশা খাজুরা এলাকায় অবস্থান করছে, এমন সংবাদের ভিত্তিতে সেখানে অভিযান চালায় পুলিশ। টের পেয়ে বাদশা ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করার চেষ্টা করে। এ সময় পুলিশ আত্মরক্ষার্থে গুলি ছোড়ে। এতে বাদশার পায়ে গুলিবিদ্ধ হয়। পরে সেখান থেকে তাকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

গত ঈদের দিন সন্ধ্যায় নির্যাতিতা পাশের বাড়িতে তার মাকে খুঁজতে বের হয়। এ সময় বাদশা ও তার সহযোগীরা নির্যাতিতার মুখ বেঁধে তুলে নিয়ে ধর্ষণ করে পার্শ্ববর্তী আবাসন প্রকল্পে ফেলে রেখে যায়। এ ঘটনায় নির্যাততার পালিত পিতা বাদী হয়ে সদর থানায় একটি মামলা করেন।টাঙ্গাইল : টাঙ্গাইল পৌরসভার কেন্দ্রীয় গোরস্তান এতিমখানা মাদ্রাসার ১০ বছরের এক শিক্ষার্থীকে বলাৎকারের অভিযোগে আবাসিক শিক্ষক হাফিজুল ইসলামকে (৩০) জেলহাজতে পাঠিয়েছেন আদালত। গতকাল টাঙ্গাইলের অতিরিক্ত জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মনিরা সুলতানা এ আদেশ দেন। এর আগে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মাদ্রাসা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। হাফিজুল ইসলাম সিরাজগঞ্জের বেলটিয়ার ময়দান আলীর ছেলে।

টাঙ্গাইল সদর থানার ওসি মীর মোশারফ হোসেন বলেন, অনেক দিন ধরে আবাসিক শিক্ষক হাফিজুল ইসলাম মাদ্রাসার এক শিক্ষার্থীকে বলাৎকার করে আসছিলেন। ঈদের ছুটিতে ওই শিক্ষার্থী বাড়িতে গিয়ে তার বাবা-মায়ের কাছে বিষয়টি জানায়। শিক্ষার্থীর বাবা বাদী হয়ে মঙ্গলবার বিকালে টাঙ্গাইল মডেল থানায় মামলা করেন। সন্ধ্যায় ওই শিক্ষককে গ্রেপ্তারের পর বুধবার তাকে আদালতে পাঠানো হয়।টাঙ্গাইল কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক তানভীর আহম্মেদ বলেন, দুপুরে অতিরিক্ত জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাদ্রাসাশিক্ষক হাফিজুল ইসলামকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) : স্কুলছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে জিলহজ মিয়া (২৫) নামে এক বখাটেকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। গতকাল দুপুর সাড়ে ১২টায় উপজেলার দরিচারবাড়িয়া গ্রাম থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি ওই গ্রামের আবু মিয়ার ছেলে।জানা যায়, মশাখালী ইউনিয়নের একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী গত সোমবার সন্ধ্যায় বাবা-মা বাড়িতে না থাকায় নিজ বসতঘরে একা ছিল। প্রতিবেশী বখাটে জিলহজ মিয়া স্কুলছাত্রীকে একা পেয়ে মুখ চেপে ধরে ধর্ষণ করে। এ সময় স্কুলছাত্রীর চিৎকারে প্রতিবেশীরা ছুটে এলে জিলহজ পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় নির্যাতিতার মা বাদী হয়ে পাগলা থানায় মামলা করেন।

পাগলা থানার ওসি শাহিনুজ্জামান খান বলেন, পুলিশ অভিযান চালিয়ে ধর্ষক জিলহজকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসে। তাকে ময়মনসিংহ আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হবে।

Share Button


দৈনিক আজকের বার্তা

প্রকাশক: মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক: কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল

যোগাযোগ

ঠিকানা: ৫২৫ ফজলুল হক এভিনিউ (কাকলীর মোড়), বরিশাল।
বাণিজ্যিক বিভাগ: 043163954
মোবাইল: 01916582339

Website Design & Developed By

আজকের বার্তার প্রকাশিত-প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।