কুয়াকাটায় পাউবো’র দুই কোটি টাকার জমি দখল

প্রকাশিত: ৪:৫৪ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২১, ২০২০

নাসির উদ্দিন বিপ্লব, কুয়াকাটা প্রতিনিধি ::

পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্মকর্তাদের উদাসীনতায় গত পনের দিন ধরে কুয়াকাটার একটি গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় ঘর তুলে অবৈধ দখল নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। পাউবো কলাপাড়া কর্তৃপক্ষ কেবল উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং সংশ্লিষ্ট থানাকে অবহিত করেই ক্ষান্ত হওয়ায় দখলদাররা ঘর তোলার এ সুযোগ পায়। কুয়াকাটা রাখাইন মহিলা মার্কেটের পেছনে এবং কুয়াকাটা শ্রীমঙ্গল বৌদ্ধ বিহার সংলগ্ন প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের সংরক্ষিত নৌকাটির পাশেই অবৈধ স্থাপনাটি নির্মাণ করা হয়।

 

কলাপাড়ার ৪৮ নং পোল্ডারের কুয়াকাটা পৌরসভার ৫৭ নং জে.এল ভূক্ত মৌজার বেড়িবাঁধের ঢালে এ অবৈধ স্থাপনা তোলার সময় স্থানীয়রা মোবাইল ফোনে জানায় পাউবো’র নির্বাহী প্রকৌশলীকে। পরবর্তীতে গত ১১ নভেম্বর অবৈধ দখলদার মোঃ ইউসুফ খলিফার নাম উল্লেখ করে কলাপাড়া নির্বাহী প্রকৌশলী খান মোহাম্মদ ওয়ালিউজ্জামান স্বাক্ষরিত একটি পত্রে স্থায়ীভাবে সরকারি সম্পত্তি দখলে উদ্বেগ জানানো হয়। এদিকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং মহিপুর থানাকে পাউবো কলাপাড়া নির্বাহী প্রকৌশলী দায়সারা গোছের ব্যবস্থা গ্রহণে অনুরোধ জানালেও দৃশ্যমান তাদের কোন তৎপরতা ছিলনা বলে অভিযোগ স্থানীয়দের।

 

সর্বশেষ প্রকাশ্য দিবালোকে ইট সিমেন্ট ব্যবহার করে পাকা মেঝের ওপর দ্বিতল টিনের ঘরটি দৃশ্যমান হয়। এরফলে বেদখলে যায় বর্তমান বাজার মূল্যে পাউবোর অন্তত দুই কোটি টাকার সম্পত্তি। এছাড়া কুয়াকাটা পৌর এলাকাসহ একই পেল্ডারের বিভিন্ন স্থানে পাউবোর জমিতে অবৈধ দখলদাররা ঘর তুলে মোটা অংকের টাকায় অন্যকে দখল বুঝিয়ে দেওয়ারও অসংখ্য নজির রয়েছে।

 

এ প্রসঙ্গে পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী খান মোহাম্মদ ওয়ালিউজ্জামান শনিবার বিকেলে মোবাইল ফোনে আজকের বার্তাকে বলেন, অবৈধ দখলদারদের তালিকা প্রস্তুত করা হচ্ছে, অচিরেই এসব উচ্ছেদে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে জেলা প্রশাসককে লিখিত অনুরোধ জানানো হবে।

Sharing is caring!