আজকের বার্তা | logo

১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ২৪শে মে, ২০১৮ ইং

কাঠালিয়া ইউএনও ও পিআইওর বিরুদ্ধে ঠিকাদার নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ

প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০১৮, ২৩:৪৯

কাঠালিয়া ইউএনও ও পিআইওর বিরুদ্ধে ঠিকাদার নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ

ঝালকাঠি প্রতিনিধি ॥ কাঠালিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভারপ্রাপ্ত প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে প্রায় ৩৮ লাখ টাকার একটি রাস্তা নির্মাণ কাজের ঠিকাদার নিয়োগে অনিয়ম, দুর্নীতি ও পে-অর্ডার জালিয়াতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে ঝালকাঠির জেলা প্রশাসক মো. হামিদুল হকের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ঝালকাঠির ঠিকাদার মেসার্স সোম এন্টারপ্রাইজের মালিক সুশান্ত সোম। অভিযোগে জানা যায়, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরে এইচবিবিকরণ প্রকল্পের পরিচালক ডা. মোতাহার হোসেনের কার্যালয় থেকে গত ১৯ অক্টোবর (২০১৭) সারাদেশের ৫৯ জেলার ২৮৮ টি উপজেলায় রাস্তা নির্মাণ কাজের টেন্ডার আহবান করা হয়। এর মধ্যে কাঠালিয়া উপজেলার দুটি রাস্তা ছিল। কাঠালিয়ার ১ নং গ্রুপে ছিল ৩৭,৯৯,৯৩৯ টাকা ব্যয়ে চেচরিরামপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের পশ্চিম চেচরি মোশারেফ হাওলাদারের বাড়ি হতে ২নং মধ্য চেচরি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত ৫০০ মিটার রাস্তা এইচবিবিকরণ এবং ২নং গ্রুপে ছিল পাটিখালঘাটা ইউনিয়নের নেয়ামতপুরা-মোল্লারহাট থেকে গাজী বাড়ি ব্রিজ পর্যন্ত ৫০০ মিটার রাস্তা এইচবিবিকরণ। দরপত্র দাখিলের শেষ তারিখ ছিল গত ২০/১২/২০১৭ তারিখ। দরপত্র খোলা হয় একই দিন। ১নং ও ২নং গ্রুপে ২২ জন করে ঠিকাদার দরপত্র দাখিল করেন। ১নং গ্রুপের দরপত্রের তুলনামূলক বিবরণীতে ২২নং ক্রমিকে ছিল মেসার্স সোম এন্টারপ্রাইজ এবং ২নং  গ্রুপের দরপত্রের তুলনামূলক বিবরণীতে ২২ নম্বরে ছিল মেসার্স তানিয়া এন্টারপ্রাইজ। গত ৩০/০১/১৮ তারিখ কাঠালিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে ঠিকাদার নির্বাচনের লটারি অনুষ্ঠিত হয়। লটারির সময় ১২/১৪ জন ঠিকাদার এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শরীফ মুহম্মদ ফয়েজুল হক, ভারপ্রাপ্ত প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা নাসরিন সুলতানা, উপজেলা প্রকৌশলীর প্রতিনিধিসহ ৫ জন উপস্থিত ছিলেন। লটারিতে ১নং গ্রুপের কাজে ২২নং ক্রমিকে থাকা সোম এন্টারপ্রাইজ এবং ২নং গ্রুপে ১৮নং ক্রমিকে থাকা এইচআর এন্টারপ্রাইজকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। পরবর্তীতে সোম এন্টারপ্রাইজ এর মালিক জানতে পারেন দরপত্র মূল্যায়ন কমিটির সভাপতি উপজেলা নির্বাহী অফিসার শরীফ মুহম্মদ ফয়েজুল হক ও মূল্যায়ন কমিটির সদস্য সচিব ভারপ্রাপ্ত কাঠালিয়া উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা নাসরিন সুলতানা পরস্পর যোগসাজশে মোটা অংকের ঘুষের বিনিময়ে দরপত্র বিবরণীর শিট পরিবর্তন করে ১নং গ্রুপে লটারিতে বিজয়ী দেখান ২নং গ্রুপের ২২নং ক্রমিকে থাকা তানিয়া এন্টারপ্রাইজকে। সোম এন্টারপ্রাইজ এর মালিক অভিযোগ করেন, ৩০ জানুয়ারি যখন লটারি হয় তখন তানিয়া এন্টারপ্রাইজ লটারিতে বিজয়ী না হওয়ায় পিআইও অফিস থেকে পে-অর্ডার তুলে নেয় এবং পূবালী ব্যাংক রাজাপুর শাখা থেকে পে-অর্ডার ভাঙিয়ে টাকা ক্যাশ করে নেয়। কিন্তু যখন ঘুষের বিনিময়ে কাঠালিয়া টিএনও এবং পিআইও তানিয়া এন্টারপ্রাইজকে কাজ দেয়ার জন্য চুক্তিবদ্ধ হন তখন আবার ৬/০২/১৮ তারিখের পূবালী ব্যাংক রাজাপুর শাখার ১ লাখ ১৪ হাজার টাকার একটি পে-অর্ডার জমা দেয়া হয় (পে-অর্ডার নং এ-০৫৯০৪৬৫)। কিন্তু আইনানুয়ায়ী দরপত্র দাখিলের তারিখের পরের তারিখ দিয়ে পে-অর্ডার দাখিলের সুযোগ নেই। টিএনও এবং পিআইও কমপক্ষে পাঁচ লাখ টাকা ঘুষের বিনিময়ে এ অনিয়ম ও দুর্নীতি করেছেন বলে সুশান্ত সোম অভিযোগ করেন। এ ব্যাপারে তিনি প্রকল্প পরিচালক ডা. মোতাহার হোসেনের কাছেও অভিযোগ দিয়েছেন বলে জানান। এ ব্যাপারে কাঠালিয়া উপজেলা ভারপ্রাপ্ত প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা নাসরিন সুলতানা বলেন, ওই দুটি রাস্তা নির্মাণ কাজের টেন্ডার বা লাটারিতে কোনো অনিয়ম হয়নি। ঠিকাদার মিথ্যা অভিযোগ করেছেন। কাঠালিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শরীফ মুহম্মদ ফয়েজুল হকের মোবাইল ফোনে একাধিকবার চেষ্টা করেও এ ব্যাপারে তার সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।