৩ কিশোরকে বেঁধে নির্যাতন, আ’লীগ নেতাসহ আটক ২

প্রকাশিত: ২:০৭ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৪, ২০২০

বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলায় মোবাইল ফোন চুরির অভিযোগে দড়ি বেঁধে তিন কিশোরকে নির্যাতনের অভিযোগে এক আওয়ামী লীগ নেতা ও তার সহযোগীকে আটক করেছে পুলিশ।

আটকরা হলেন- বাকেরগঞ্জ উপজেলার পৌর এলাকার সাত নম্বর ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের সভাপতি ইদ্রিস সরদার ও তার সহযোগী মিজান মাঝি।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার (১৪ এপ্রিল) সকালে কিশোর নির্যাতনের ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। এর আগে গত রোববার (১২ এপ্রিল) বাকেরগঞ্জ উপজেলার পৌর এলাকার সাত নম্বর ওয়ার্ডের ভরপাশা গ্রামের একটি ধানক্ষেতে এ নির্যাতনের ঘটনা ঘটে। এক আত্মীয়র মোবাইল চুরি হওয়ায় সন্দেহজনক তিন কিশোরকে দড়ি দিয়ে বেঁধে পাশবিক নির্যাতন করেন আওয়ামী লীগ নেতা ইদ্রিস ও তার এক সহযোগী মিজান। এ সময় সেখানে উপস্থিত ব্যক্তিরা নির্যাতনের দৃশ্য মোবাইলে ধারণ করেন।

ধারণ কার ভিডিওতে দেখা যায় সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে জনসমাগম ঘটিয়ে ওই আওয়ামী লীগ নেতা তিন কিশোরকে কখনো লাঠি আবার কখনো হাত দিয়ে মারধর করছেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কিশোর নির্যাতনের ভিডিওটি ভাইরাল হলে সাংবাদিকরা বিষয়টি বরিশালের পুলিশ সুপার (এসপি) মো. সাইফুল ইসলামের নজরে আনেন। পুলিশ সুপার ফুটেজ দেখে ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের আটকের নির্দেশ দেন। পরে এ ঘটনায় পুলিশ ওই আওয়ামী লীগ নেতা ও তার সহযোগীকে আটক করে।

বাকেরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবুল কালাম বাংলানিউজকে জানান, এ ঘটনায় ওই আওয়ামী লীগ নেতা ও তার সহযোগীকে আটক করা হয়েছে। নির্যাতিত তিন কিশোরের মধ্যে একজনের বাবা বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। আটকদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা প্রস্তুতি চলছে।

Sharing is caring!