৩৫ পরিবারের জমি দখল করে ৩টি ইটভাটা দিলেন যুবলীগ সভাপতি

প্রকাশিত: ২:০৭ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২, ২০১৯

৩৫টি পরিবারের ৬৫ একর জমি দখল করেছেন পটুয়াখালীর কলাপাড়া পৌর যুবলীগের সভাপতি ও পৌরসভার কাউন্সিলর জাকি হোসেন খান জুকু।মুক্তিযোদ্ধা পরিবারসহ ৩৫টি পরিবারের ৬৫ একর জমি দখল করে তিনটি ইটভাটা নির্মাণ করেছেন কাউন্সিলর জুকু। সেই সঙ্গে ওই সব পরিবারের সদস্যদের ওপর হামলা ও বাড়িতে লুটপাট করা হয়েছে।এসব অভিযোগ তুলে কাউন্সিলর জুকুর বিচারের দাবিতে মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছেন ভুক্তভোগীরা। বুধবার বেলা ১১টায় কলাপাড়া প্রেস ক্লাবের সামনের সড়কে মানববন্ধন করেন ভুক্তভোগী ৩৫টি পরিবারের সদস্যরা। এতে শতাধিক লোক অংশগ্রহণ করেন।

মানববন্ধন-পরবর্তী সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ভুক্তভোগী মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী মাজেদা বেগম, খেপুপাড়া মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত সিনিয়র শিক্ষক মো. আবুল কাসেম, মাওলানা হাবিবুর রহমান, সোবাহান টেন্ডল ও নজরুল ইসলাম।

শিক্ষক আবুল কাসেম বলেন, ‘আমি জুকুর শিক্ষক। অথচ আমার জমিও দখল করে নিয়েছে জুকু। তার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দিয়েও কোনো প্রতিকার পাইনি।মাজেদা বেগম বলেন, মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্য হওয়া সত্ত্বেও আমার জমি দখল করেছে কাউন্সিলর জুকু। এভাবে ৩৫টি পরিবারের জমি দখল করলেও তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে না সংশ্লিষ্ট প্রশাসন।সমাবেশে বক্তারা বলেন, যুবলীগ নেতা জুকুর ভয়ে আমরা প্রতিবাদ করার সাহস পাই না। এ কারণে ৩৫টি পরিবার কোণঠাসা হয়ে আছি। আমাদের জমি দখল করে পায়রা ব্রিকফিল্ড, খান ব্রিকফিল্ড ও দেশ ব্রিকফিল্ড নির্মাণ করেছেন যুবলীগ নেতা জুকু। ফলে তিন বছর ধরে বন্ধ রয়েছে আমাদের চাষাবাদ। এ অবস্থায় আর্থিক সংকটে মানবেতর জীবনযাপন করছি আমরা। আমাদের জমি দখলমুক্ত করতে প্রধানমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের সহায়তা চাই।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে কলাপাড়া পৌর যুবলীগের সভাপতি ও কাউন্সিলর জাকি হোসেন খান জুকু বলেন, রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের ইন্ধনে আমার বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগ করা হচ্ছে। এসব অভিযোগ মিথ্যা এবং ভিত্তিহীন। যদি কেউ জমি দাবি করে এবং তার জমির সঠিক কাগজপত্র দেখাতে পারে তাহলে আমি ওই জমি ছেড়ে দেব।

Sharing is caring!