২৪ ঘণ্টায় শেবাচিমে করোনা আক্রান্ত ৩ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত: ৬:৪৯ অপরাহ্ণ, জুলাই ৪, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালে করোনা পজেটিভ এবং পজেটিভ থেকে নেগেটিভ হওয়া পৃথক ২ রোগীর মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। এছাড়া উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন আরও একজন।

গতকাল শনিবার (৪ জুলাই) সকাল সাড়ে ৫ টায় এবং রাত পৌনে ১১ টায় হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডের আইসিইউতে এই তিন রোগীর মৃত্যু হয়। হাসপাতাল সূত্রে জানাগেছে, শনিবার (৪ জুলাই) সকাল সাড়ে ৫ টার দিকে ঝালকাঠি জেলার নলছিটি উপজেলার বাসিন্দা অরুন কুমারের ছেলে সুনিল কুমার (৫০) শেবাচিম হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন।

এরআগে তিনি গত ৫ জুন বেলা ১২ টায় উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে ভর্তি হন। পরবর্তীতে নমুনা পরীক্ষা করে ১৩ জুন তার করোনা পজেটিভ পাওয়া যায় এবং চিকিৎসা সেবা প্রদান শেষে গত ২৬ জুন দ্বিতীয়বার নমুনা পরীক্ষা করলে নেগেটিভ আসে। তবে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে আইসিইউতে নেয়া হয় এবং সেখানেই তার মৃত্যু ঘটে। অপরদিকে সকাল সাড়ে ৫ টায় পিরোজপুর সদরের সেনাখালী এলাকার নূর মোহাম্মদের ছেলে সফিকুল ইসলাম (৫০) শেবাচিম হাসপাতালের আইসিইউতে মৃত্যুবরণ করেন।

এরআগে ২৮ জুন বেলা ১২ টায় তিনি করোনার উপসর্গ নিয়ে শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি হন। পরবর্তীতে নমুনা পরীক্ষা করে ১৩ জুন তার করোনা পজেটিভ পাওয়া যায় বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের পরিচালক ডাঃ বাকির হোসেন। এছাড়া রাত ১০ টা ৪০ মিনিটে মৃত্যু হয় নিমাই বনিক (৬০) নামে অপর এক বৃদ্ধের। তিনি বরিশাল নগরীর নতুন বাজার এলাকার বাসিন্দা গবিন্দ চন্দ্র বনিকের ছেলে। তাকে ৩০ জুন হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছিল। মৃত ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, এ পর্যন্ত বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের করোনা ও আইসোলশন ওয়ার্ডে মোট ১১০ জন রোগীর মৃত্যু হয়েছে। যারমধ্যে পজেটিভ ৩৮ জন। এদিকে বৃহস্পতিবার নতুন শনাক্ত হওয়া ৫৬ জনসহ বরিশাল জেলায় এ পর্যন্ত ১ হাজার ৬৫৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। যারমধ্যে সর্বশেষ ১২ জনসহ ৪৩৫ জন রোগী সুস্থ হয়েছেন এবং ২৫ জন করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তি মৃত্যুবরণ করেছেন।