হিজলায় স্বামীকে হত্যার হুমকি দিয়ে ৪ বছর যাবত ধর্ষণ

প্রকাশিত: ৮:২২ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৮, ২০২০

হিজলা প্রতিনিধি ॥

বরিশালের হিজলা উপজেলার বাউসিয়া গ্রামের জব্বার সরদারের স্ত্রী খাদিজা বেগম এর স্বামী জব্বারকে হত্যার হুমকি দিয়ে ৪ বছর যাবত নিয়মিত ধর্ষণ করেছেন একই বাড়ির রত্তন সরদারের জেলে জামাল সরদার। সরেজমিনে জানাযায়, সাড়ে ৪ বছর পূর্বে দক্ষিণ চর দেবুয়া এলাকার শামচুল হক খান এর মেয়ে খাদিজা বেগম এর সাথে বাউসিয়া এলাকার খালেক সরদারের ছেলে জব্বার সরদারের বিয়ে হয়।

বিয়ের পর কিছু দিন শান্তিপূর্ণ ভাবেই সংসার চলছিল। জব্বার জীবিকার তাগীদে নদীতে মাছ শিকার করেন। এদিকে একই বাড়ির রত্তন সরদারের লম্পট পুত্র জামাল সরদারের কু দৃষ্টি পড়ে খাদিজার উপর। এক পর্যায়ে কু প্রস্তার দিলে খাদিজা তা প্রত্যাখ্যান করেন খাদিজা। এদিকে দীর্ঘ কয়েক দিনের জন্য জব্বার দূর নদীতে মাছ শিকার করতে যাওয়ায় ঐ সুযোগে জামাল সরদার খাদিজার ঘরে ঢুকে স্বামীকে হত্যার হুমকি দেন।

ভয়ে মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন খাদিজা। তখন জোরপূর্বক খাদিজাকে ধর্ষণ করেন জামাল। আর ধর্ষণের ভিডিও চিত্র মোবাইলে ধারণ করে তা ছড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে এই ধর্ষণ চলে টানা ৪ বছর। এর মধ্যে খাদিজার গর্ভে আসে জামাল সরদারের সন্তান। সেই সন্তানের বয়স এখন প্রায় ৩ বছর। এদিকে খাদিজার স্বামী জব্বার বিষয়টি মোবাইল রেকর্ডিং এর মাধ্যমে জানতে পেরে খাদিজাকে তাড়িয়ে দেন তার বাবার বাড়ি।

এরপরেই খাদিজা মুখ খুলতে শুরু করেন। এবিষয়ে খাদিজা জানান, আমার স্বামীকে হত্যা করবে এমন হুমকি দিয়ে আমাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে ভিডিও ধারণ করে জামাল, সেই ভিডিও সবার কাছে ছড়িয়ে দিবে এই ভয় দেখিয়ে আমার সাথে নিয়মিত মেলামেশা করত। যখন আমার গর্ভে সন্তান আসে তখন আমাকে বিয়ে করবে এমন কথা বলেছিল, এখন আমার বাচ্চার বয়স প্রায় ৩ বছর হয়ে গেছে। আমার স্বামী বিষয়টি জানতে পেরে আমাকে তাড়িয়ে দিয়েছে।

ধর্ষণের ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর থেকেই পলাতক রয়েছেন অভিযুক্ত জামাল সরদার।

অভিযুক্ত জামাল সরদারের বাবা রত্তন সরদার জানান, এঘটনা আমি জানতে পেরে ছেলেকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দিয়েছি।

এব্যাপারে হিজলা থানার অফিসার ইনচার্জ অসীম কুমার সিকদার জানান, এরকম ঘটনা ঘটে থাকলে অবশ্যই তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Sharing is caring!