স্বামীর বাড়িতে সন্তান নিয়ে ৫ দিন যাবৎ স্ত্রীর অনশন, সুষ্ঠু বিচার দাবি

প্রকাশিত: ১:২৪ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ১২, ২০২০
এম বুরহান উদ্দীন- ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:
ঝিনাইদহের সদর উপজেলার ডাকবাংলা উত্তর নারায়ণপুর গ্রামে স্বামীর বাড়িতে ৯ বছরের এক কন্যা সন্তান নিয়ে ৫ দিন যাবৎ অনশন শুরু করেছে তার স্ত্রী । গত বৃহস্পতিবার থেকে এই অনশন চালিয়ে যান তিনি।
খোজ নিয়ে জানা যায়, ২০০৯ সালে সদর উপজেলার ডাকবাংলা উত্তর নারায়ণপুর গ্রামের মৃত খাদিমুলের ছেলে মেহেদী হাসান বাবুর সাথে পাশ্ববর্তী ডাকবাংলা বাজারের মৃত এহেসানুল হক এর মেয়ে রোকসানা খাতুনের বিয়ে হয়। বিয়ের পরে তাদের ঘরে মেহেমিন মারিয়া নামের এক কন্যা সন্তানের জন্ম হয়।
স্ত্রী রোকসানা অভিযোগ করেন, ২০০৯ সালে আমরা সম্পর্ক করে বিবাহ করেছি। বিবাহের পর আমার শ্বশুর বাড়ির লোকজন মেনে না নেওয়ায় আমার স্বামী আমাকে নিয়ে ঝিনাইদহ শহরের পাগলাকানাই এলাকায় বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস ও সংসার করে আসছিল। পরে তাদের ঘরে একটি কন্যা সন্তান জন্ম লাভ করে।  এরই মাঝে গত কিছুদিন ধরে আমার স্বামী আমার সাথে কোন যোগাযোগ না করায় আমি আমার স্বামীর বাড়িতে আসি। আমাকে ওই বাড়িতে শ্বাশুড়ির নেতৃত্বে স্বামীর পরিবারের লোকজন আমার এবং আমার সন্তানকে আটকিয়ে রাখে। এ খবর পেয়ে ঝিনাইদহ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ঘটনাস্থলে পৌছে আমাকে তাদের কাছে বুঝিয়ে রেখে আসে। এ ঘটনায় বুধবার এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে বিচার শালিসের দিন ধার্য করেছে উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ে।
তবে এসকল নির্দেশ উপেক্ষা করে আমার শ্বশুর বাড়ির লোকজন আমার এবং সন্তানকে ফেলে রেখে বাড়ি থেকে সরে পড়েছে। বর্তমান আমি ওই বাড়িতে সন্তান নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছি। আমি এ ঘটনায় সুষ্ঠ বিচার দাবি করছি।

Sharing is caring!