সৌদির তেল স্থাপনায় হামলার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে ইরান

প্রকাশিত: ৬:২৩ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৯

সৌদি আরবের তেল স্থাপনায় হামলায় যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স ও জার্মানি ইরানকে অভিযুক্ত করে যে বিবৃতি দিয়েছে তা প্রত্যাখ্যান করেছে তেহরান।পরাশক্তি এই তিন দেশকে সৌদি আরবে হামলার ঘটনায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মতো ইরানকে অযৌক্তির দোষারোপের পুনরাবৃত্তি না ঘটানোরও আহ্বান জানিয়েছেন ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ।

তবে ইউরোপীয় নেতারা ইরানের বিরুদ্ধে যে বিবৃতি দিয়েছে সে বিষয়ে তাদের কাছে জোরালো কোনো প্রমাণ নেই। বিবৃতিতে তারা জানিয়েছে, ইরান ২০১৫ সালে আন্তর্জাতিক পারমাণবিক চুক্তিতে সই করার মধ্য দিয়ে তারা প্রতিজ্ঞাবদ্ধ যে তারা এ ধরনের হামলা চালাবে না।‌‘‌তবে এটা স্পষ্ট যে ইরানকে এই হামলার দায় বহন করতে হবে। যদিও এই হামলায় ইরানের জড়িত থাকার বিষয়টি স্পষ্ট নয়। তবে এই ঘটনার সুস্পষ্ট তদন্ত হোক এটার পক্ষে আমরা সমর্থন করি।

‘তবে সময় এসেছে ইরানের সঙ্গে দীর্ঘমেয়াদে পারমাণবিক চুক্তির বিষয়ে একটা সমাধানে আসা। তাহলে মধ্যপ্রাচ্যের আঞ্চলিক নিরাপত্তার বিষয়গুলো নিয়ে একটা সমাধানে আসা যাবে।গত ১৪ সেপ্টেম্বর সৌদি আরবের আরামকোর দুটি তেল স্থাপনায় হামলা চালানো হয়।  এতে ওই স্থাপনা দুটি বড় ধরনের ক্ষতির সম্মুখীন হয়। এই হামলায় ইয়ামেনের হুতি বিদ্রোহীরা দায় স্বীকার করলেও সৌদি আরব এই হামলার পেছনে মূলত ইরানকে দায়ী করেছে।

১৮টি ড্রোন এবং সাতটি মিসাইল দিয়ে তেল স্থাপনা দুটিতে হামলা চালানো হয়। সৌদির এই তেল স্থাপনায় হামলার ফলে দেশটি তাদের মোট উৎপাদনের প্রায় অর্ধেক কমিয়ে দিয়েছে।সৌদি আরবের তেল স্থাপনায় হামলার পর মিত্র দেশ যুক্তরাষ্ট্র দেশটিতে সেনা সদস্য আরও বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে।

Sharing is caring!