সুগন্ধা নদীর একাংশে জানে আলমের ইলিশ নিধন উৎসব

প্রকাশিত: ১১:০০ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২২, ২০২০

বাবুগঞ্জ প্রতিনিধি ॥

নিষেধাজ্ঞার মধ্যে প্রশাসনের কঠোর নজরদারি সত্ত্বেও থামছে না বাবুগঞ্জের সুগন্ধা নদীতে ইলিশ নিধন উৎসব। প্রতিদিনই সুগন্ধা নদীতে জাল ফেলে মাছ শিকার করছেন স্থানীয় জানে আলম ফকির নামক ব্যক্তি। অভিযোগ উঠেছে, অদৃশ্য ক্ষমতাবলে সুগন্ধা নদীর একাংশ দখল করে নিষেধাজ্ঞায় ইলিশ শিকারের রেকর্ড গড়েছেন উপজেলার কেদারপুর ইউনিয়নের সানি কেদারপুর এলাকার মান্না ফকিরের ছেলে জানে আলম।

সরেজমিনে জানাগেছে, ‘জানে আলম সুগন্ধা নদীর সানি কেদারপুর লঞ্চঘাট থেকে কাশিগঞ্জ পর্যন্ত ত্রিশজন জেলের প্রত্যেকের কাছ থেকে প্রতিদিন পাঁচটি ইলিশ ও পাঁচশত টাকা উত্তোলন করে কারেন্ট জাল দিয়ে ইলিশ শিকার করাচ্ছেন।

শুধু তাই নয়, ইতিপূর্বে জানে আলম ফকিরের নেতৃত্বে ওই এলাকায় প্রশাসনের মৎস্য নিধন বিরোধী অভিযানের ট্রলারে হামলা চালানোর ঘটনাও ঘটেছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় একাধিক সূত্র।

এ প্রসঙ্গে বাবুগঞ্জ উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা বলেন, ‘গত মঙ্গলবার আমরা কাশিগঞ্জ এলাকায় মা ইলিশ রক্ষায় অভিযান পরিচালনা করেছি। এসময় সেখানে ২০-২৫ জন জেলে ইলিশ শিকার করছিলো। আমরা সেখানে যাওয়া মাত্রই আমাদের ওপর হামলার চেষ্টা করে জেলেরা। যা তাৎক্ষণিকভাবে বাবুগঞ্জ থানা পুলিশকে অবগত করা হয়েছে। তবে ওই গ্রুপটির সাথে জানে আলম নামের কারোর সংশ্লিষ্ট রয়েছে কিনা সে বিষয়টি নিশ্চিত নই।

বাবুগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্র্জ (ওসি) মো. মিজানুর রহমান বলেন, ‘জানে আলম জেলেদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে ইলিশ শিকার করছেন বলে শুনেছি। বিষয়টি নিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও মৎস্য অফিসারের সাথে কথা বলেছি। শীঘ্রই উপজেলা প্রশাসনকে সাথে নিয়ে সংশ্লিষ্ট এলাকায় অভিযান চালানো হবে বলে জানান ওসি।

Sharing is caring!