সিনহা হত্যার ঘটনায় আটক সিফাতের সহপাঠীদের মানববন্ধন, পুলিশের বাধা


Deprecated: get_the_author_ID is deprecated since version 2.8.0! Use get_the_author_meta('ID') instead. in /home/ajkerbarta/public_html/wp-includes/functions.php on line 4861
প্রকাশিত: ৭:২৬ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৮, ২০২০

 

তরিকুল ইসলাম রতন, বরগুনা জেলা প্রতিনিধি ॥

নিহত মেজর সিনহার সাথে থাকা সিফাতের মুক্তির দাবিতে বরগুনার বামনা উপজেলায় মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সম্প্রতি পুলিশের গুলিতে মেজর (অবঃ) সিনহা মোহাম্মদ রাশেদের মৃত্যুর পর গ্রেফতার ও কারাবন্দি শাহেদুল ইসলাম প্রকাশ সিফাতের মুক্তির দাবিতে করা মানববন্ধনে লাঠিচার্জ করেছে পুলিশ।

শনিবার দুপুর ১২ টায় সিফাতের নিজ গ্রাম বরগুনার বামনায় অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে গ্রেফতার সিফাতের শিক্ষক, সহপাঠী, স্বজন ও এলাকাবাসী অংশগ্রহণ করেন।

এসময় বামনা থানা পুলিশের একটি দল প্রথমে শিক্ষার্থীদের হাতে থাকা ব্যানার-পোস্টার ছিনিয়ে নেয়। এর ১০ মিনিট পরে বামনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইলিয়াস মানববন্ধনে থাকা শিক্ষার্থীদের নানাভাবে বাধা প্রদান এবং লাঠিচার্জ করেন। এ ঘটনায় অন্তত ১০ শিক্ষার্থী আহত হন।

সিফাতের নানা বামনা সদর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ আইউব আলী হাওলাদার সাংবাদিকদের বলেন, আমার মেয়ের ঘরের নাতি সিফাত নিহত মেজর সিনহার মামলায় ষড়যন্ত্রমূলকভাকে গ্রেফতার হয়েছে। তার মুক্তির দাবিতে শনিবার ছাত্র ও তার সহপাঠীরা শান্তিপূর্ণভাবে মানববন্ধন করে। কিছুক্ষণ পরে পুলিশ এসে যে ঘটনা ঘটিয়েছে আমি তার তীব্র নিন্দা জানাই।

এবিষয়ে বামনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ ইলিয়াছ হোসেন তালুকদার বলেন, বামনায় সিফাতের মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন পালিত হয়েছে। কিন্তু আমি বামনা থানার ওসি অথচ আমি তা জানি না এবং থানায় তারা কোন আবেদনও করেননি।

তিনি আরও বলেন, বামনা উপজেলার প্রধান সড়কটি তারা বন্ধ করে এ মানববন্ধন করেছিলো। এবং আজকের (শনিবার) দিনটি একটি বিশেষ দিন। সেখানে তারা কিভাবে মানববন্ধন করে।

এখানে যদি কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে যেত তাহলে এর দায় কে নিতো।

তাছাড়া এখানে জামায়াত, শিবির ও জঙ্গিবাদী যড়যন্ত্রকারীরা কোন অঘটন ঘটাতে পারতো। তাই আমি আমার পুলিশ প্রশাসনকে সতর্ক থাকতে বলেছি, এর বেশি কিছু নয়।