সমাজ থেকে দুষ্ট আত্মা আড়াতে হবে- প্রলয় চিসিম

প্রকাশিত: ১১:৩৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১০, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার \ বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের এয়ারপোর্ট থানার ‘ওপেন হাউস ডে’ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে অনুষ্ঠিত ‘ওপেন হাউস ডে’তে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএমপি’র অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার প্রলয় চিসিম।
প্রধান অতিথি’র বক্তৃতায় তিনি বলেন, সমাজ থেকে দুষ্ট আত্মা তাড়াতে হবে। শিষ্টের পালন করতে হবে। থানা হলো জনগণের শেষ আশ্রয়স্থল। অপরাধ দানাবাঁধার আগেই তা নিয়ন্ত্রণে আনতে হবে। এজন্য আমরা আরও ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র এরিয়ায় বিভক্ত করে কমিউনিটি পুলিশিং এর পরিপূরক বিটপুলিশিং কার্যক্রম নিয়ে আপনাদের দোরগোড়ায় পৌঁছে গেছি।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি’র বক্তৃতায় বিএমপি’র উত্তর বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার মো. খাইরুল আলম ‘ওপেন হাউস ডে’ তে অংশগ্রহই করা এলাকাবাসী এবং সংবাদকর্মীদের মাস্ক বিতরণ করে বলেন, ‘সমাজে যারা খারাপ কাজ করে তারা সংখ্যায় অত্যন্ত কম। তাই শুধু নিজেকে ভালো রাখলেই হবে না। সবাইকে নিয়ে ভালো থাকতে হবে।

তিনি আরও বলেন, ‘অপরাধ নিয়ন্ত্রণে পুলিশ জনতা এক হয়ে কাজ করতে হবে। কোথাও কোন অপরাধ সংগঠিত হওয়ার আগেই তা পুলিশকে জানানোর পরামর্শ দিয়েছেন বিএমপি’র উত্তর বিভাগের এই কর্মকর্তা।

এসময় পুলিশের সেবামার মান নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করে ‘ওপেন হাউস ডে’ তে অংশগ্রহন করা এয়ারপোর্ট থানাধীন কলসগ্রামের বাসিন্দা পল্লী চিকিৎসক শামীম আকন বলেন, ‘আমাদের চেম্বার চেয়ারম্যানদের অনেক সময় ফোনে পাওয়া যায় না। হয়তো তাঁরা ব্যস্ত থাকেন। কিন্তু বিএমপি’র থানা অফিসার, শীর্ষ কর্মকর্তা এমনকি স্বয়ং কমিশনার মহোদয়কে যে কোন সময় ফোন দিলে পাওয়া যাচ্ছে। তাদের সাথে মন খুলে সমস্যার কথা বলতে পারছি। বর্তমান পুলিশ বাহিনীর প্রতিটি সদস্য পূর্বের যে কোন সময়ের পুলিশের থেকে আরও শক্তিশালী এবং আন্তরিক বলে অভিমত ব্যক্ত করেন ওই পল্লী চিকিৎসক।

‘ওপেন হাউস ডে’ অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে এয়ারপোর্ট থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত সহকারী পুলিশ কমিশনার, এয়ারপোর্ট থানার অফিসার ইনচার্জ, থানার পুলিশ পরিদর্শকসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

Sharing is caring!