শেবাচিমে নতুন ডিভাইসে প্রেগনেন্সি টেস্ট শুরু

প্রকাশিত: ১১:১৭ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৪, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার ॥ অবশেষে পরিবর্তন হল বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালে গর্ভধারণ পরীক্ষার ডিভাইস। মেয়াদ উত্তীর্ণ ডিভাইস অপসারণ করে বর্তমানে নতুন ডিভাইস দিয়ে চলছে পরীক্ষা কার্যক্রম। হাসপাতালের প্যাথলজি বিভাগের ইনচার্জ আশিষ কুমার সোম এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জানাগেছে, ‘দীর্ঘ প্রায় এক বছর ধরে শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্যাথলজি বিভাগে মেয়াদ উত্তীর্ণ ডিভাইস দিয়ে করা হয় গর্ভধারণ নিশ্চিতকরণ পরীক্ষা। সম্প্রতি বিষয়টি গণমাধ্যমের নজরে আসে। এ নিয়ে দৈনিক আজকের বার্তাসহ বিভিন্ন জাতীয়, আঞ্চলিক এবং অনলাইন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হয়। এতে টনক নড়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের। পাশাপাশি বিষয়টি নিয়ে হাসপাতাল জুড়ে তোলপাড় শুরু হয়। এর পর পরই প্যাথলজি বিভাগ থেকে সরিয়ে নেওয়া হয় মেয়াদ উত্তীর্ণ ডিভাইসগুলো।

এদিকে হাসপাতালের প্যাথলজি বিভাগের একটি দায়িত্বশীল সূত্র জানিয়েছে, ‘পত্রিকায় লেখা লেখির পরে প্যাথলজি বিভাগ থেকে মেয়াদোত্তীর্ণ ডিভাইস সরিয়ে ফেলা হয়। এর ফলে কিছুদিন প্রেগনেন্সি টেস্ট বন্ধ ছিল। পরে নতুন ডিভাইস সরবরাহ করে পরীক্ষা কার্যক্রম শুরু হয়। গত ৪-৫ দিন ধরে নতুন ডিভাইস দিয়েই প্যাথলজি বিভাগে হাসপাতালে সেবা নিতে আসা রোগীদের প্রেগনেন্সি টেস্ট করা হচ্ছে।