শেবাচিমে অবহেলায় রোগী মৃত্যুর ঘটনায় নার্সের বিরুদ্ধে অভিযোগ

প্রকাশিত: ১২:৩৭ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ১৯, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালে অবহেলায় রোগী মৃত্যুর ঘটনায় সিনিয়র স্টাফ নার্স শিথী’র বিরুদ্ধে অভিযোগ দেয়া হয়েছে। মৃত ব্যক্তির স্বজন মো. আবুল কাসেম মঙ্গলবার ওই নার্সের বিচার দাবি করে হাসপাতাল পরিচালক বরাবর এই অভিযোগ দায়ের করেছেন।

লিখিত অভিযোগে তিনি উল্লেখ করেছেন, ‘ গত ১৫ আগস্ট বিকালে শেবাচিম হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স শিথী’র অবহেলায় মহিলা সার্জারী ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রোগী ফাতেমা বেগম (৪০) নামের রোগীর মৃত্যু হয়েছে। রোগী গুরুতরভাবে অসুস্থ হয়ে পড়লে যখন নার্স শিথীকে ডাকা হয় তখন তিনি রোগীর মুখে নিজে না গিয়ে কর্মরত আয়ার দ্বারা বন্ধ অক্সিজেন লাগান। পরে যখন রোগীর অবস্থা আরও খারাপ হয় তখন নার্স শিথীকে পুনরায় ডাকতে গেলে নার্স শিথী রোগীর স্বজনদের সাথে খারাপ ব্যবহার করেন। অবশেষে চিকিৎসা অবহেলায় রোগী ফাতেমা বেগমের মৃত্যু হয়। তাই এই ঘটনায় নার্স শিথীর সঠিক বিচার দাবি করা হয়েছে ওই অভিযোগপত্রে।

প্রসঙ্গত, ডায়াবেটিস ও পিত্তে পাথর জনিত সমস্যা নিয়ে গত শুক্রবার রাত ৮টার দিকে ফাতেমা বেগমকে শেবাচিম হাসপাতালের মহিলা সার্জারী ওয়ার্ডে ইউনিট-২ এর অধীনে ভর্তি করা হয়। ‘শুক্রবার বিকাল ৪টার দিকে হঠাৎ করে তার শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। এজন্য চিকিৎসকের পরামর্শে ওয়ার্ডে দায়িত্বরত সিনিয়র স্টাফ নার্স শিথীর কাছে অক্সিজেনের জন্য গেলে তিনি নিজে না গিয়ে আয়াদের মাধ্যমে রোগীর মুখে অক্সিজেন মাস্ক পরিয়ে দেয়ান। অক্সিজেন সঠিকভাবে লাগানো হয়নি বুঝতে পেরে স্বজনরা পুনরায় নার্স শিথীকে ডাকার জন্য যান। এতে শিথী ক্ষিপ্ত হয়ে তাদের সাথে খারাপ ব্যবহার করেন। এর কিছুক্ষণ পরেই ওই রোগীর মৃত্যু হয়। এ ঘটনার জের ধরে মৃতের স্বজনদের মাঝে উত্তজনা সৃষ্টি হলে রোগীর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যান সিনিয়র স্টাফ নার্স শিথী।

Sharing is caring!