শেবাচিমের করোনা ওয়ার্ড থেকে বিপুল অঙ্কের স্যানিটারি সামগ্রী চুরি

প্রকাশিত: ৬:১৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ১১, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজের করোনা ওয়ার্ডের ভবন থেকে আনুমানিক ৬ লক্ষ টাকার স্যানিটারি সামগ্রী চুরির ঘটনা ঘটেছে। চুরি যাওয়া সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে ফিটিংস বিফকল, বেসিং কল, কমোড, শাওয়ারসহ প্রায় ৫০ পিস স্যানিটারি মালামাল। চুরির সময়কাল সঠিকভাবে জানা গেলেও বৃহস্পতিবার বিষয়টি নজরে আসে কর্তৃপক্ষের। এ ঘটনায় ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

এদিকে গতকাল শিল্প মন্ত্রণালয়ের সচিবের সাথে অনুষ্ঠিত সভায়ও বিষয়টি তোলা হয়েছিল। এর পরপরই কমিটি গঠন করে ৭ দিনের মধ্যে তদন্ত রিপোর্ট জমা দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়।

দায়ীত্বপাপ্ত ওয়ার্ড মাস্টার আবুল কালাম বলেন, ভীতির কারণে করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসক-নার্স-স্টাফদের আনাগোনা অনেকটাই কম। চোরচক্র হয়ত এ সুযোগটিকেই কাজে লাগিয়েছে। তিনি বলেন, গত বৃহস্পতিবার ওয়ার্ডে পানি নিয়ে সমস্যা সৃষ্টি হয়েছিল। মূলত তখনই চুরির বিষয়টি সংশ্লিষ্টদের নজরে আসে।

সূত্র জানায়, করোনা মোকাবেলায় শেবাচিমের নতুন ভবনটি করোনা ওয়ার্ড হিসেবে রূপান্তর করা হয়। হাসপাতালের পরিচালককে ভবনটি ব্যবহারের জন্য মৌখিকভাবে নির্দেশনা দেয়া হয়েছিল। এরই ধারাবাহিকতায় সহকারী প্রকৌশলী ফিরোজ আলম ভবনের বিভিন্ন কক্ষের ১৩৯ টি চাবি ওয়ার্ড মাস্টার ফেরদৌস ও আবুল কালামকে বুঝিয়ে দিয়েছিলেন।

এ প্রসঙ্গে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. বাকির হোসেন বলেন, চুরির ঘটনাটি নিয়ে সচিবের উপস্থিতিতে জেলা প্রশাসকের দপ্তরের সভায় আলোচনা হয়েছে। ঘটনা তদন্তে ৩ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি গঠন করে ৭ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। প্রতিবেদন পাওয়ার পর সে অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে তিনি জানান।