শীঘ্রই চালু হচ্ছে বরিশাল চিফ জুডিশিয়াল আদালতের নতুন ভবন

প্রকাশিত: 5:56 PM, July 28, 2019

মো. জিয়াউদ্দিন বাবু ॥ ৫ম তলা পর্যন্ত নয়, ১০ তলা পর্যন্ত ব্যবহারের উপযোগী করে অতিসত্বর চালু করা হচ্ছে বরিশাল চিফ জুডিশিয়াল আদালতের নতুন ভবন। বরিশাল গণপূর্ত বিভাগ ও আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৬ সনের ১২ জানুয়ারি শুরু হয় ১০ তলা বিশিষ্ট জুডিশিয়াল ভবন নির্মাণ কাজ। ওইদিনই আইনমন্ত্রী মো. আনিসুল হক আনুষ্ঠানিকভাবে ভবন নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন। এর সাথে ২০১৫ সালের ২৭ ডিসেম্বর বরিশালের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাজের অনুমোদন দেয়া হয়। ৩৫ কোটি ৮৫ লাখ ২৬ হাজার ২১৭ টাকা ব্যয় নির্ধারণ করা হয়। পরে ৩১ কোটি ৩৮ লাখ ৮৭ হাজার ৪৭৫ টাকায় কাজটি অনুমোদন দেয়া হয়। ওই অনুমোদনে ৩০ মাসের মধ্যে কাজটি সম্পন্ন করার নির্দেশ দেয়া হয়। সেই অনুযায়ী ২০১৬ সালের ১২ জানুয়ারি কাজ শুরু হয়। কাজ শুরু হবার পর থেকে দ্রুত গতিতে চলতে থাকে আদালতটির নির্মাণ কাজ। দেখতে দেখতে এখন কাজটি একদমই শেষ পর্যায়ে চলে এসেছে। শেষ হতে হয়তো আর অল্প কিছুদিন বাকী। লিফটের কাজ বাকী রয়েছে। এছাড়া কিছু কাজ বাকী রয়েছে। এই ভবনটি সম্পন্ন হলে আদালতের এজলাসসহ বিচার প্রার্থীদের দুর্ভোগ যা ছিলো তা সমাধান হবে। জানা গেছে, নির্মিত ১০ তলা বিশিষ্ট এই ভবনের প্রথম দুটি ফ্লোরের আয়তন ১৩ হাজার ৯১২ স্কয়ার ফিট। পরের ৮টি ফ্লোর ১২ হাজার ১৫৩ স্কয়ার ফিট করা হয়েছে। ভবন ও বিচারক ও বিচার প্রার্থীদের জন্য রাখা হয়েছে আলাদা ব্যবস্থা। ১০ তলা এ ভবনে ১৪টি এজলাস থাকবে। এর পাশাপাশি থাকবে বিচারকদের খাসকামড়া, শিক্ষানবিশ বিচারকদের জন্য আলাদা কক্ষ, সেমিনার কক্ষ, নামাজের কক্ষ, ক্যাফেটেরিয়া ও গাড়ি পার্কিং এর ব্যবস্থা। এছাড়া বিচারপ্রার্থীদের সবচেয়ে বড় সমস্যা দূরীকরণে প্রতিটি ফ্লোরে রাখা হয়েছে ৪ থেকে ৫টি টয়লেট। এজলাসের থেকে একটু দূরে রাখা হয়েছে বিচারপ্রার্থীদের জন্য বসার জায়গা। আরো রয়েছে বিচার প্রার্থীদের সাথে আসা ছোট শিশুদের খাওয়ানোর ও রাখার জন্যও সুব্যবস্থা। একই সাথে এই ভবনে ওঠা-নামার জন্য দেয়া হয়েছে ৩টি লিফট। যার মধ্যে ১টি বিচারকদের জন্য ও অপর ২টি আদালতের অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারী ও বিচারপ্রার্থীদের জন্য ব্যবহৃত হবে বলে জানা গেছে।

Share Button