শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ৩য় শ্রেণী কর্মচারীদের বৈষম্য দূরকরণ এখন সময়ের দাবি- বাকশিস সভাপতি

প্রকাশিত: ৭:৩০ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার ::

গাজিপুরের কাপাসিয়ায় এক অফিস সহকারীকে অন্যায়ভাবে ভ্রাম্যমাণ আদালত কর্তৃক জরিমানা আদায়ের প্রতিবাদ ও ৬ দফা দাবিতে বরিশালে মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। নগরীর অশ্বিনী কুমার হল চত্বরে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন জেলা সভাপতি গাজি আব্দুস ছালাম।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে কর্মসূচীরপ্রতি পূর্ণ সমর্থন জ্ঞাপন করেন বাংলাদেশ কলেজ শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দ। প্রধান বক্তা কেন্দ্রীয় সিনিয়র সহ সভাপতি জিয়াউদ্দিন সরদার তার বক্তব্যে মানব বন্ধনের প্রেক্ষাপট বর্ণনা করে কাপাসিয়ার ঘটনার তীব্র নিন্দা এবং জরিমানার সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবি জানান। একই সাথে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অফিস সহকারীদের কর্মঘণ্টা নির্ধারণের দাবি জানিয়ে বলেন, যতক্ষণ শিক্ষক স্কুলে থাকবেন, ততক্ষণ অফিস সহকারী থাকবেন।

করোনাকালীন অফিস সহকারীদের দিনরাত কাজ করতে হচ্ছে, নেই কোন প্রণোদনা। তিনি তৃতীয় শ্রেণী কর্মচারীদের ১০ম গ্রেডে বেতন প্রদানের জোর দাবি জানান। মানববন্ধনে বাকশিস জেলা সভাপতি অধ্যক্ষ মহসিন উল ইসলাম হাবুল বলেন, এটা চির সত্য,প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অফিস সহকারীরা বৈষম্যের শিকার। বেতন, পদন্নতি, কর্মঘণ্টা বিষয়ে দ্রুত সরকারের পদক্ষেপের দাবি জানান।

তিনি ঢাকার গাজিপুরের জরিমানার ঘটনার বিষয়ে তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন, যিনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অফিস সহকারীকে জরিমানা করেছেন, তার জ্ঞান নিয়ে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে। অবিলম্বে তিনি জরিমানা প্রত্যাহারের দাবি জানান। জেলা সভাপতি গাজি আব্দুস ছালাম মানব বন্ধনে ৬টি দাবি মেনে নেয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহবান জানান, একই সাথে দূর দূরান্ত থেকে মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করায় সহকর্মীদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।

সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন শিক্ষক নেতা আমিনুল ইসলাম খোকন, জেলা সম্পাদক ফিরোজ আহমেদ, হাবিবুর রহমান প্রমুখ।

Sharing is caring!