রাঙ্গাবালীতে অনাহারী বৃদ্ধার বাড়িতে খাবার নিয়ে গেল সেচ্ছাসেবীরা

প্রকাশিত: ১১:৩০ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ১৮, ২০২০

রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি: ষাটোর্ধŸ নারী মহরজান বিবি। স্বামী, সন্তান বা কোন স্বজন কেউ নেই তার। পরিবারে সে একা। অন্যের বাড়ি কাজ করে চলে তার জীবিকা। করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে কর্মহীন এই নারী। এই সময়ে মানুষের ঘরের দরজা বন্ধ! তাই কারো দুয়ারে হাত পাততেও পারছেননা। এ কারণে কয়েক দিনধরে অনহারে-অর্ধহারে কাটছিল তার জীবন। এরই মধ্যে মাইকিংয়ে শুনতে পান একটি খবর। ‘হ্যালো চেয়ারম্যান’ হটলাইন নম্বরে কল দিলে ঘরের দরজায় খাবার পৌঁছে যায়। খবরটি শুনে বুধাবার সন্ধায় পাশের বাড়ির একজনের মোবাইল ফোন দিয়ে সেই নম্বরে কল দেন। এরপরই বৃহস্পতিবার সকালে তার বাড়ি সামনে খাবার নিয়ে হাজির হয়ে যায় ‘হ্যালো চেয়ারম্যান’ হটলাইনের সেচ্ছাসেবী টিম। মহরজান বিবির বাড়ি পটুয়াখালী জেলার রাঙ্গাবালী উপজেলা সদর ইউনিয়নের জুগির হাওলা গ্রামে। হঠাৎ করে বাড়ির সামনে খাবার দেখে অবাক হয়েযান মহরজান বিবি। খুশিতে কান্নায় ভেঙে পরেন সে।
মহরজান বিবি বলেন, ‘দুনিয়াতে আমার কেউ নাই। ম্যাইনষের বাড়ি কাম(কাজ) কইরা খাই। কয়দিন ধইরা কাম বন্ধ। টাহা(টাকা) পয়সা যা আছিল, তা দিয়া বাজার খাওয়া অইয়া গ্যাছে। দুইদিন উপাস থাকছি। পরে মাইকে শুনি যে, মোবাইলে কল দিলে চেয়ারম্যান খাওন দিবে। হেইল্লাগা আমি কল দিছি। এরপর আমার বাড়ি চেয়ারম্যানের লোকজন খাওন লইয়া আইছে। আমি চেয়াম্যানের লাই¹া দোয়া করি। আল্লায় এমন মানুষ বাঁচাই রাহুক। এরম একটা ব্যবস্থা না করলে আমাগো না খাইয়া মরা লাগতো।’
হ্যালো চেয়াম্যান হেল্পলাইনের প্রতিষ্ঠাতা ও রাঙ্গাবালী সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সাইদুজ্জামান মামুন খাঁন জানান, করোনা ভাইরাসের কারণে সারাদেশ অচল। এই সময়ে মানুষ কর্মহীন হয়ে পরেছে। নিন্ম আয়ের লোকেদের কস্টে জীবন কাটছে। এমনকি কেউ অনাহারে থাকতে পারেন। এই চিন্তা মাথায় নিয়ে আমি ‘হ্যালো চেয়ারম্যান’ নামে একটি হেল্পলাইন প্রতিষ্ঠা করি। যাতে এই নম্বরে কল দিয়ে নি¤œ আয়ের মানুষেরা খাবার পেতে পারেন। মহরজান বিবির মতো একজন অনহারী মানুষের মুখে আমি এই খাবার পৌঁছে দিতে পেরেছি, এটাই আমার স্বার্থকতা। আমি চাই আমার রাঙ্গবালীর একজন মানুষও যাতে অনাহারে না থাকে। আমার ‘হ্যালো চেয়াম্যান’ সেচ্ছাসেবী টিম মাঠে সক্রিয় রয়েছে। তারা এ লক্ষ্যে কাজ করছেন।
উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাসে কর্মহীন হয়ে পরা অসহায় দুস্থদের মাঝে খাবার পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে গত ৯ এপ্রিল একটি হেল্পলাইন নম্বর খুলেন রাঙ্গাবালী সদর ইউনিয়ন পরিষদ। সেই সাথে ‘হ্যালো চেয়ারম্যান’ নামে একটি সেচ্ছাসেবী সংগঠনও করা হয়। হটলাইনে কল দিলে সেচ্ছাসেবীরা খাবার পৌঁছে দেয়। হেল্পলাইন নম্বরটি হলো ০১৩১১-৬৫৬৪৩৬ এবং ০১৯৩৮-৬৪৬৭০৬ ,,,