মুশফিক পার্থক্য দেখছেন টাকায়, উইকেটে

প্রকাশিত: ১২:২১ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৮, ২০২০

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বিসিবি এবার আয়োজন করেছিল বিশেষ বিপিএল। আগের বিপিএলের সঙ্গে এবারের টুর্নামেন্টে কিছু পার্থক্য দেখছেন মুশফিকুর রহিম

এবারের বিপিএল ছিল বিসিবির ‘বিশেষ’ এক টুর্নামেন্ট। প্রথমবারের মতো ফ্র্যাঞ্চাইজিদের বাদ দিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে বিসিবি আয়োজন করেছিল বিশেষ বিপিএল। অনেকটা নিজস্ব অর্থায়নে আয়োজিত বলে অর্থের ছড়াছড়ি খুব বেশি ছিল না এ টুর্নামেন্টে।

শুরুতে নানা সংশয় থাকলেও বিসিবি সফলভাবেই শেষ করেছে বিপিএল। খুলনা টাইগার্সের অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমও বেশ খুশি এবারের টুর্নামেন্ট নিয়ে। তবে আগের বিপিএলের সঙ্গে এই বিপিএলের তুলনা করতে গিয়ে নতুন করে আবার পারিশ্রমিকের বিষয়টিই সামনে আনলেন দেশের অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান, ‘পার্থক্য যদি বলেন (অন্যবারের তুলনায়) তা শুধু পারিশ্রমিকে। আর তো কিছু দেখি না। মানে ভালো।’

খুলনা টাইগার্স অধিনায়কের কাছে বিপিএল বিশ্বের সেরা লিগগুলোর একটি। ‘বেঞ্চমার্ক’ হিসেবে আইপিএলের উদাহরণ টেনে মুশফিক বলেন, ‘আইপিএলের পর এটি বিশ্বের সেরা লিগগুলোর একটি। নাম যদি বলেন, এখানে অনেক বড় বড় ক্রিকেটার খেলেন। বিশ্বমানের ক্রিকেটারদের সঙ্গে খেলে আমাদের অনেক উন্নতি হয়েছে। এবার উইকেটগুলো ভালো ছিল। স্থানীয় ক্রিকেটাররা ভালো করেছে। অনেক ইতিবাচক দিক আছে। পরের মৌসুম থেকে যদি আমাদের পারিশ্রমিক আরেকটু বাড়ে, তাহলে আরও ভালো কিছু হবে আশা করি।’

দেশের ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিক বাড়ানোর যৌক্তিকতা মুশফিক আগেও তুলে ধরেছেন। এবার নিলামে দেশের ক্রিকেটারদের মধ্যে সবচেয়ে ওপরের ক্যাটাগরিতে থেকে তিনি পেয়েছেন ৫০ লাখ টাকা। অথচ একই শ্রেণিতে থাকা একজন বিদেশের ক্রিকেটার পেয়েছেন এক লাখ ডলার বা প্রায় ৮৪ লাখ টাকা।

মুশফিক পার্থক্য দেখছেন বিপিএলের উইকেটেও। এবার যে ধরনের উইকেটে খেলা হয়েছে, সবাই মনে করছেন এটিই টি-টোয়েন্টির আদর্শ উইকেট। মুশফিক তাই ধন্যবাদ দিচ্ছেন কিউরেটরদের, ‘কিউরেটদের অভিনন্দন জানাই। এক-দুই ম্যাচ ছাড়া প্রায় পুরো টুর্নামেন্ট আমরা ভালো উইকেট পেয়েছি। যদি অন্য বিপিএলের সঙ্গে তুলনা করেন, ব্যাটসম্যানদের স্ট্রাইক রেট দেখেন, বোলারদের ইকোনমি দেখেন…। দেশের বাইরে খেলতে গেলে এমন উইকেটেই খেলতে হবে। ব্যাটসম্যানদের জন্য রান থাকবে, বোলারদের জন্য উইকেট নেওয়ার, রান আটকানোর চ্যালেঞ্জ থাকবে। কেবল স্পোর্টিং উইকেটে খেলেই সম্ভব সে সব চ্যালেঞ্জের জন্য প্রস্তুতি নেওয়া।’

মুশফিকের প্রত্যাশা সামনের বিপিএলেও থাকবে এমন উইকেট।

Sharing is caring!