মুজিববর্ষে কলাপাড়ায় ৪৫০ ভূমিহীন পরিবার পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর গৃহ উপহার

প্রকাশিত: ৮:১১ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৮, ২০২১

মেজবাহউদ্দিন মাননু, কলাপাড়া প্রতিনিধি ॥ মুজিবশতবর্ষ উপলক্ষ্যে শ্রমজীবী হতদরিদ্র ভূমিহীন ও গৃহহীন বিভিন্ন পেশার ৪৫০ পরিবার প্রধানমন্ত্রীর উপহার ঘর পাচ্ছে। দুই শতক খাস জমি বন্দোবস্ত প্রদান পূর্বক একক গৃহ নির্মাণের মাধ্যমে এই পুনর্বাসন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হচ্ছে। আশ্রয়ণ-২ প্রকল্প, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়/দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়/গুচ্ছগ্রাম-২য় পর্যায় (ঈঠজচ)প্রকল্প, ভূমি মন্ত্রণালয় এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। ইতোমধ্যে কলাপাড়ার ১২টি ইউনিয়নের ৪৫০ টি হতদরিদ্র ভূমিহীন পরিবারকে বাছাই করা হয়েছে। খাস জমি বাছাই করে সেখানে ঘর তোলার কাজ চলমান রয়েছে।

 

আগামি ২০ জানুয়ারি ২৩৫ টি পরিবারকে এই ঘর হস্তান্তরের প্রস্তুতি সম্পন্ন রয়েছে। উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, কলাপাড়ার ধানখালীতে ৮০টি, চম্পাপুর ৫২টি, চাকামইয়া ১৩টি, টিয়াখালী ৬টি, নীলগঞ্জে ২৭টি, বালিয়াতলী ৫০টি, লালুয়া ৫৪টি, মিঠাগঞ্জে ৬০টি, ধুলাসারে ৭৫টি, লতাচাপলী ৩০টি এবং কুয়াকাটায় দুইটি হতদরিদ্র পরিবার এই ঘর পাচ্ছেন। প্রত্যেকটি ঘর নির্মাণে ব্যয় বরাদ্দ রয়েছে এক লাখ ৭১ হাজার টাকা। তবে এইসব ঘর প্রাপ্তদের তালিকা তৈরিতে জনপ্রতিনিধিদের বিরুদ্ধে স্বজনপ্রীতির অভিযোগ উঠেছে। প্রকৃত অতিদরিদ্র পরিবারকে বাদ দিয়ে বহু অপেক্ষাকৃত সচ্ছল পরিবারকে তালিকাভুক্ত করে ঘর দেয়ার প্রক্রিয়া চলছে। আবার কেউ কেউ ঘরের নাম অন্তর্ভুক্তিতে আর্থিক সুবিধা নেয়ার জনশ্রুতি রয়েছে।

 

তবে প্রকৃত হতদরিদ্র অসহায় পরিবার ঘর পেয়ে খুব খুশি। নীলগঞ্জ ইউনিয়নের ইসলামপুর গ্রামের লায়লা আক্তার খুশি জানান, দীর্ঘ বছরের পর বছর স্বামী মোঃ সরোয়ার খোঁজ নেয়না। চরম জীর্ণ দশার একটি ঝুপড়ি ঘরে অষ্টম শ্রেণি পড়ুয়া মেয়েকে নিয়ে কাজের সন্ধানে যেতে হয়। সর্বদা থাকতেন উৎকণ্ঠায়। খুশি সেমিপাকা ঘরটি পেয়ে যারপরনাই খুশি হয়েছেন। নিজের এবং মেয়ের নিরাপত্তার শঙ্কা বহুলাংশে লাঘব হলো। নিজেদের নিশ্চিন্ত মনে করছেন। ধানখালীর পাঁচজুনিয়া গ্রামের সাইফুন বিবি-হাবিল হাওলাদার দম্পতি এমন একটি ঘর পেতে যাচ্ছেন তা ভাবতেই পারছেন না।

 

এ সব পরিবারে এখন ঘর পাওয়ার অনাবিল আনন্দ। তারা প্রাণভরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য দোয়া করছেন বলে মন্তব্য করেন। কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহিদুল হক জানান, ২০ জানুয়ারির মধ্যে ১৩৫ টি ঘর এসব হতদরিদ্র ভূমিহীন-গৃহহীনদেরকে বুঝিয়ে দেয়া হবে। মাননীয় প্রাধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সারা দেশের সঙ্গে একই সঙ্গে এসব ঘরের আনুষ্ঠানিক হস্তান্তর করবেন বলে এ কর্মকর্তা নিশ্চিত করেছেন।