মুগা খান জামে মসজিদ বাকেরগঞ্জের আকর্ষণীয় স্থাপত্য


Deprecated: get_the_author_ID is deprecated since version 2.8.0! Use get_the_author_meta('ID') instead. in /home/ajkerbarta/public_html/wp-includes/functions.php on line 4861
প্রকাশিত: ৮:৪০ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১০, ২০২০

বায়েজিদ বাপ্পি, বাকেরগঞ্জ প্রতিনিধি  ::

চরামদ্দি মুগা খান জামে মসজিদ বরিশাল শহর থেকে ১০ কি.মি. পূর্বদিকে বাকেরগঞ্জ উপজেলার চরামদ্দি ইউনিয়নে অবস্থিত। ধারণা করা হয় মুঙ্গা খান সতেরো শতাব্দির শেষের দিকে অথবা আঠারো শতকের প্রথমলগ্নে মসজিদটি নির্মাণ করেন। মুঙ্গা খানের নামানুসারে এর নামকরণ করা হয়েছে মুগা খান জামে মসজিদ। মুগা খান জামে মসজিদ বাকেগঞ্জের আকর্ষণীয় স্থাপত্যরাজির মধ্যে অন্যতম। অনিন্দ্য সুন্দর মসজিদটি তিন গম্বুজ বিশিষ্ট।

উত্তর-দক্ষিণে এর দৈর্ঘ্য ৩৬ ফুট, পূর্ব পশ্চিমে প্রস্থ ১৮ ফুট। দেয়ালের প্রশস্ততা ৩৫ ইঞ্চি। মসজিদের পূর্ব দিক দিয়ে ৩ টি খিলান পথ আছে। দরজার উপরিভাগ অলংকৃত। পশ্চিম দেয়ালে একটি মিহরাব। এর উপরিভাগ ফুল পাতার নকশায় আচ্ছাদিত। মসজিদটির প্রধান আকর্ষণ ভিতরের চার দেয়ালের মাঝ বরাবর এক ফুট চওড়া বেড় দিয়ে তার ভিতর কুরআনের আয়াত লিপিবদ্ধ করা হয়েছে।

সুরা ফাতিহা, ইখলাস, আর রহমান প্রভৃতি সুন্দরভাবে লিখিত। এ মনোমুগ্ধকর শিল্পকর্মটি মসজিদের অভ্যন্তরকে নান্দনিক ও চিত্তাকর্ষক করে তুলেছে। শিল্পীর এ নিপুণ কলাকৌশল যে কোন দর্শককে মুগ্ধ করে।

সেই আমলের একটি রেহাবিও মসজিদের ভিতরে সংরক্ষিত আছে। রেহাবির মধ্যাংশে ক্যালিওগ্রাফি স্টাইলে সুরা ইখলাস লিখিত। কয়েক বছর আগে পূর্ব, উত্তর, দক্ষিণদিকে মসজিদের জায়গা সম্প্রসারণ করা হয় এবং মূল মসজিদের সংস্কার করা হয়। সংস্কারের ফলে প্রচীন চিহ্ন কিছুটা লোপ পেয়েছে। মসজিদের ভিতরে চার শতাধিক মানুষ একত্রে সালাত আদায় করতে পারে। মসজিদের দক্ষিণ পাশে গোরস্থান।

এখানে শায়িত আছেন মুঙ্গা খান, দক্ষিণ বাংলার বিখ্যাত দরবেশ ইয়াকীন শাহ, দানবীর হাজী আছমত আলী খানসহ আরো অনেকে। মসজিদের পূর্ব দিকেই পুকুর। সবচেয়ে আজব ব্যাপার হলো পুকুরের তলদেশও পাকা করা হয়েছিল। এর কারণ সম্পর্কে সঠিক কোন কিছু জানা যায়নি।

তবে বর্তমানে পুকুরের নিম্নভাগের পাকা ফ্লোরের উপর কাদামাটির আস্তরণ পড়েছে। তাই পাকা অংশ দেখতে হলে কর্দমাক্ত মাটি উঠিয়ে আরো গভীরে যেতে হবে।