মঠবাড়িয়ায় ১৭ কোটি টাকা নিয়ে এনজিও ঊধাও : প্রতিবাদে মানববন্ধন

প্রকাশিত: ৬:১৪ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৪, ২০২০

বার্তা ডেস্ক ॥

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় সানলাইফ উন্নয়ন সংস্থা নামের একটি বে-সরকারি এনজিও স্থানীয় নিম্ন আয়ের লোকজনদেরকে অধিক মুনাফার আশ্বাস দিয়ে গ্রাহকের (জমাকৃত) ১৭ কোটি টাকা উধাও হয়েছে। সম্প্রতি সংস্থাটি তুষখালীর অফিস ছেড়ে রাতের অন্ধকারে পালিয়ে গেলে গ্রাহকদের মধ্যে ক্ষোভ ও হতাশার সৃষ্টি হয়। ভুক্তভোগী ও টাকা ফেরৎ পাবার দাবিতে সোমবার সকালে তুষখালী-বড়মাছুয়া সড়কের ছোট মাছুয়া নামক স্থানে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছেন সহস্রাধিক গ্রাহক।

৫ শতাধিক গ্রাহকের উপস্থিতিতে এক ঘন্টাব্যপী এ মানববন্ধন শেষে এক প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন,ভোক্তভোগী ও নিঃস্ব গ্রাহক রোজি পারভীন, লাকী বেগম, পুতুল, খাদিজা, শাহজালাল, নূরজাহান, মালেক মোল্লা, নাসরিন, সেফালী, আসমা বেগম প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, সানলাইফ উন্নয়ন সংস্থাটি ১০ বছর মেয়াদী ডিপিএস, সঞ্চয়, দ্বিগুণ মুনফাসহ লোভনীয় প্রতিশ্রুতি দিয়ে ১ লাখ থেকে ৭ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে লাপাত্তা হয়েছে। আমাদের শেষ পুঁজিটুকুও জমা করে আজ আমরা নিঃশ্ব হয়ে গেছি। নি:শ্ব গ্রাহকরা বক্তব্য রাখতে গিয়ে অনেকেই কান্নায় ভেঙে পড়েন।

রোজি পারভীন, সালমা, খাদিজা, পুতুল জানান, সানলাইফ উন্নয়ন সংস্থার ব্যবস্থাপনা পরিচালক সিদ্দিকুর রহমান ওরফে জাফর ২০০২ সালে উপজেলার তুষখালী ইউনিয়নে একটি অফিস ভাড়া নেন। এবং তাদেরকে ৬ হাজার টাকা বেতনে মাঠ সমন্বয়কারি হিসেবে নিয়োগ দেন। এতে তারা উপজেলার বিভিন্ন এলাকার সহস্রাধিক গ্রাহকের কাছ থেকে ১৭ কোটি টাকা আদায় করে দেন।

এব্যাপারে জানতে সানলাইফ উন্নয়ন সংস্থার ব্যবস্থাপনা পরিচালক সিদ্দিকুর রহমান ওরফে জাফর এর তিনটি মোবাইল নম্বরে (০১৭৭৫৮৫৪৬৩৩/০১৭৮২৮১৯৬৪৩/০১৯২৫৭৪৬১৩৫) কল করলে সবকটি নম্বর বন্ধ পাওয়া যায়।

মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আ জ মাসুদ্দুজ্জামান মিলু জানান, টাকা হাতিয়ে নেয়ার বিষয়ে অবহিত হয়েছি। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Sharing is caring!