মঠবাড়িয়ায় সরকারি খাল দখল করে বহুতল ভবন নির্মাণের অভিযোগ

প্রকাশিত: ৮:২৭ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২০, ২০২১

মো. শাহজাহান, মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি ॥ পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার মিরুখালী থেকে মঠবাড়িয়া অভিমুখী মিরুখালী বাজার সংলগ্ন কুলুর খালে বহুতল ভবন নির্মাণ করে সরকারি জমি দখল করার অভিযোগ উঠেছে। বিষয়টি নিয়ে এলাকাবাসী ক্ষোভ প্রকাশ করলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এখন পর্যন্ত কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি। সরেজমিনে দেখা যায়, উপজেলার ৩ নং মিরুখালী ইউনিয়নের নাপিতখালি মৌজার ৫ নং ওয়ার্ডের মৃত মহাদেব কর্মকারের পুত্র পরিমল কর্মকার ও মৃত লাল মিয়ার পুত্র আঃ খালেক মিয়া তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের পিছনে খালের ওপরে বহুতল ভবনের আরসিসি গাইডওয়াল ও বেজমেন্ট নির্মাণ কাজ চালাচ্ছেন। আদৌ আইন মেনে ওই খাল লিজ নেওয়া হয়েছে কিনা বা সরকার কোন রাজস্ব পাচ্ছে কিনা এমন প্রশ্নের কোন সদুত্তর দিতে পারেননি তারা। তাদের দাবী আমাদের পৈত্রিক সম্পত্তিতে আমরা ভবন নির্মাণ করছি।

খালটির বাজার সংলগ্ন অংশ সাবেক জেএল নং ২৬ বর্তমান জেএল নং ২০ এর (সিট নং ২) ১০৪ নং খতিয়ানের অন্তর্ভুক্ত। কারিগরি জটিলতা ও ভূমি মালিকদের অসহযোগিতার কারণে জরিপ কাজ স্থগিত হয়। স্থানীয়দের ধারণা, অসাধু একটি চক্র খালটির শ্রেণীর পরিবর্তন করে অর্থাৎ স্থাপনা তৈরি করার পর বি এস জরিপ সম্পন্ন করার জন্য চলমান জরিপ কাজে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে। এ ব্যাপারে সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার মীর আব্দুল মান্নান জানান, নাপিতখালি মৌজার অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন আছে। আগামী ২ মাসের মধ্যে পুনরায় জরিপ কাজ শুরু হবে। খালের শ্রেণী পরিবর্তন করে বি এস জরিপকে বিতর্কিত করার কোনো সুযোগ নেই।
এসিল্যান্ড আকাশ কুমার কুন্ডু জানান, সরেজমিনে সার্ভেয়ার পাঠিয়ে বিষয়টি খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

১ নং খাস খতিয়ানভুক্ত জেলা পরিষদের খালটিতে বহুতল ভবন নির্মাণের ব্যাপারে জেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা রেবেকা খান জানান, খুব শীঘ্রই জেলা পরিষদ থেকে সার্ভেয়ার পাঠিয়ে বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।