মঠবাড়িয়ায় রাস্তার মাঝে গাছ, দুর্ভোগে শতাধিক পরিবার

প্রকাশিত: ৬:৪৭ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৯, ২০২০

মো. শাহজাহান, মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি ॥

গাছ মানুষের পরম বন্ধু কিন্তু সেই গাছই আবার কোন কোন সময় দুর্ভোগের কারণ হয়ে দাঁড়ায় মানুষের। এমনি দুর্ভোগের শিকার পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার মিরুখালী ইউনিয়নের একটি গ্রামের শতাধিক পরিবার। গাছ মালিকের খামখেয়ালিপনায় একটি কেয়ারের রাস্তার সুবিধা থেকে বঞ্চিত এ পরিবারগুলো।

সরেজমিনের দেখা যায়, মিরুখালী ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড হাচকি বাড়ি ব্রীজের বিপরীতে কার্পেটিং রাস্তা থেকে খান বাড়ীর সামনে থেকে সুলতান চৌকিদার বাড়ি পর্যন্ত প্রায় ১ কিলোমিটার রাস্তার ইতোমধ্যে ৩০০ ফুট ইট সলিং হয়েছে। বাকী অংশ ইট সলিং করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা। কিন্তু খান বাড়ির সামনে এমাদুল খানের স্বেচ্ছাচারিতায় তিনটি রেন্ট্রি গাছ রাস্তার মাঝখানে থাকায় তিন চাকার কোন গাড়ি প্রবেশ করতে পারছে না।

এ নিয়ে ভুক্ত ভোগীরা স্থানীয় পর্যায় অভিযোগ করলেও কোন লাভ হয়নি। ভুক্তভোগী এক অটো চালক রাস্তা দিয়ে নিজ বাড়িতে গাড়ী আনতে না পেরে ইতোমধ্যে ওই অটো গাড়ীটি (ইজি বাইক) বিক্রি করে দিয়েছেন।

এ ব্যাপারে এমাদুল খান জানান, রাস্তা পাকা হলে রাস্তার মধ্যে থাকা আমার গাছ কেটে নিব। ভ্যান, রিক্সা, অটোসহ পণ্যবাহী কোন গাড়ী যাতায়াত করতে না পারায় পরিবারগুলোকে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এর দায় কে নিবে? এমন প্রশ্নের জবাবে এমাদুল কোন সদুত্তর দিতে পারেনি।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সোবাহান শরীফ জানান, বিষয়টি খোঁজ খবর নিয়ে দেখব। রাস্তার মাঝখানে গাছ থাকলে অবশ্যই কাটতে হবে।
মঠবাড়িয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার ঊর্মি ভৌমিক জানান, অভিযোগ পেলে তদন্ত পূর্বক যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে। রাস্তায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করার কোন সুযোগ নেই।

Sharing is caring!