মঠবাড়িয়ায় ফার্মেসি নিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষে মামলা

প্রকাশিত: ৭:৪৪ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১১, ২০২০

 মো. শাহজাহান, মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি ॥

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় বেতমোর বাজারে ব্যক্তিগতভাবে এক ফার্মেসি মালিক আরেক ফার্মেসি মালিকের দোকানে গিয়ে লাইসেন্স দেখতে চাইলে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, হামলা,ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় মঠবাড়িয়া থানায় ২ টি মামলা রুজু করা হয়েছে।

অভিযোগে জানা যায়, বেতমোর বাজারের জোহা মেডিকেল হলের ওষুধ বিক্রির লাইসেন্স না থাকায় সংলগ্ন হাওলাদার ফার্মেসির মালিক জাকির হোসেন বাজার কমিটির মিটিং এ স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতে লাইসেন্সবিহীন ওষুধ বিক্রির মৌখিক অভিযোগ করেন। বিষয়টি ইউপি চেয়ারম্যান সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে নিশ্চিত হয়ে সুরাহা দিবেন বলে জানান।

ওইদিন সন্ধ্যায় জোহা মেডিকেল হলের মালিক হাসান খন্দকার হাওলাদার ফার্মেসির মালিক জাকির হোসেনের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছেন- এমন গুজবে জাকির উত্তেজিত হয়ে জোহা ফার্মেসিতে গিয়ে লাইসেন্স দেখতে চাইলে উভয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতি হয়। এসময় স্থানীয়রা তাদেরকে নিবৃত্ত করেন।

জাকির নিজ ফার্মেসিতে যাওয়ার পর ২০/২৫ জন দুর্বৃত্ত ফার্মেসিতে হামলা চালায়। জাকিরকে না পেয়ে জাকিরের ছোট ভাই মামুনকে পিটিয়ে ও চাচাতো ভাই ফোরকানকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে তার। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে মঠবাড়িয়া হাসপাতালে নিয়ে আসেন।

জোহা ফার্মেসির মালিক হাসান জানান, আমার ফার্মেসির লাইসেন্সের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন। তারপরও কোন অসঙ্গতি থাকলে তা দেখভালের জন্য অথরিটি আছে। জাকির হোসেন আমার ফার্মেসিতে লাইসেন্স দেখতে এসে একটি অনাকাঙ্খিত ঘটনার সৃষ্টি করেছেন।
মঠবাড়িয়া থানার ওসি মাসুদুজ্জামান জানান,এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Sharing is caring!