মঠবাড়িয়ায় প্রধান শিক্ষকের অপসারণ দাবিতে লাগাতার অবস্থান কর্মসূচী

প্রকাশিত: ৭:১৩ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৭, ২০২০

মো. শাহজাহান, মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি ::

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার কেএম লতীফ ইনস্টিটিউশনের প্রধান শিক্ষক মোস্তাফিজুর রহমানের বিরুদ্ধে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগে অপসারণ দাবিতে লাগাতার অবস্থান কর্মসূচী ঘোষণা করা হয়েছে। ১৭ নভেম্বর সকাল ১০ টায় বিদ্যালয়টির শহীদ মিনার চত্বরে এ কর্মসূচী শুরু হয়।

 

বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক খলিলুর রহমানের সভাপতিত্বে ও সহকারী শিক্ষক এনামুল হক এর সঞ্চালনায় প্রথম দিনের এ কর্মসূচীতে অংশগ্রহণ করেন এবং বক্তব্য রাখেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মুজিবুল হক মজনু, বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাড. মজিবর রহমান মুন্সি, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোস্তফা শাহ আলম দুলাল, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল বাসার মাতুব্বর, বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহাদাত হোসেন রাজা,সহকারী শিক্ষক নুরুল ইসলাম, আজম্মেল হক,নূর হোসেন প্রমুখ।

 

বিদ্যালয়ের ২০ জন শিক্ষক, একাধিক কর্মচারী, শতাধিক প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও স্থানীয় সাধারণ মানুষ অবস্থান কর্মসূচীতে স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করেন। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত কর্মসূচী অব্যাহত রাখার ঘোষণা দেন বক্তারা।

ইতোমধ্যে বিদ্যালয়টির প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের মধ্যে একাধিক সচিব, উপ সচিব, চিকিৎসক, ইঞ্জিনিয়ার, মুক্তিযোদ্ধা ও রাজনীতিক পদে থাকা বিচক্ষণ ব্যক্তিরা বিদ্যালয়ের ঐতিহ্য ধরে রাখতে ও হারানো ঐতিহ্য পুনরুদ্ধারে ভার্চুয়াল আলোচনার মাধ্যমে সকল অনিয়ম ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে সংহতি প্রকাশ করেছেন।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি প্রধান শিক্ষক মোস্তাফিজুর রহমান যোগদানের পর থেকেই বিভিন্ন অনিয়ম, দুর্নীতি ও স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ ওঠে। একপর্যায়ে বিদ্যালয়ের সুনাম ও ঐতিহ্য অস্তিত্ব সংকটে পড়ায় এবং শিক্ষকদের বেতন (বিদ্যালয় অংশ) পরিশোধ না করে উন্নয়ন কাজের নামে কোটি কোটি টাকার বিতর্কিত ভাউচার তৈরি করে মোটা অংকের টাকা আত্মসাত করেন বলে ইতোপূর্বে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলন ও মানববন্ধনে ভুক্তভোগী শিক্ষকরা অভিযোগ তোলেন। তবে প্রধান শিক্ষক এ অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন।