মঠবাড়িয়ায় প্রতারণার শিকার এক মাহেন্দ্র ড্রাইভার

প্রকাশিত: ৮:১২ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৯, ২০২০

মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি ॥ পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় জমি ক্রয়ের নামে বায়না চুক্তি ও কৌশলে ব্ল্যাঙ্ক স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর রেখে বাবুল নামে এক মাহেন্দ্র ড্রাইভারের সাথে প্রতারণার অভিযোগ উঠেছে প্রভাবশালী স্বামী পরিত্যক্ত এক নারীর বিরুদ্ধে। ওই নারী টিকিকাটা ইউনিয়নের পূর্ব সেনের টিকিকাটা গ্রামের মৃত আঃ মজিদ মিয়ার মেয়ে।

অভিযোগে জানা গেছে, পূর্ব সেনের টিকিকাটা গ্রামের মৃত বারেক শেখের পুত্র বাবুল মাহেন্দ্র চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করেন। পারিবারিক কারণে নগদ টাকার আবশ্যক হওয়ায় বাবুল গং পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত টিকিকাটা মৌজার এসএ খতিয়ান নং ৪০০ দাগ নং ১৭৪৯,১৭৪৮ থেকে ৭ শতাংশ সম্পত্তি ৫ লক্ষ টাকায় সাব কবলা বিক্রয় শর্তে ২ লক্ষ টাকা অগ্রীম গ্রহণ করে বিপাকে পড়েন।ওই নারী তার প্রবাসী দুই ভাইয়ের নামে বাবুলের সাথে বায়না চুক্তি করেই ক্ষান্ত হননি। উপরন্তু তার প্রবাসী ভাইদের নামে তের ফালির এক সেট ব্লাঙ্ক স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর রেখে ফাঁদে ফেলেন। স্ট্যাম্পের সিরিয়াল নাম্বার২৮৩০৯৯৩ হইতে ৫৪৩২২১৬ পর্যন্ত তাং-১৩/০৭/২০২০।

আলমাস নামে ওই নারী পরিকল্পিতভাবে ওই কাগজপত্র সুকৌশলে ভুল বুঝিয়ে নিয়ে সহজ সরল বাবুলের বসত ভিটা বাড়িও লিখে নেওয়ার অপচেষ্টা করেন। বাবুল বিষয়টি টের পেয়ে জমি বিক্রি করতে অপারগতা প্রকাশ করেন। এতে ওই নারী বায়নার টাকা ফেরত চান। বাবুল বায়নার টাকা ফেরত দিতে গেলে ওই নারী নানা টালবাহানা শুরু করেন এবং বাবুলকে নানাভাবে ভয়ভীতি প্রদর্শন ও মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর হুমকি দেন।

ভুক্তভোগী বাবুল বলেন, জমি বিক্রি করতে গিয়ে আমি এখন হয়রানির শিকার। প্রতিপক্ষরা ব্ল্যাঙ্ক স্ট্যাম্পে জোরপূর্বক আমার স্বাক্ষর রেখে এখন বসত ভিটাও লিখে নেওয়ার অপচেষ্টা করছে। আমি প্রশাসনসহ সকলের সহায়তা কামনা করছি।
এ ব্যাপারে মোসাঃ আলমাসের সাথে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

Sharing is caring!