মঠবাড়িয়ায় তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে বিরোধের জের -প্রতিমা ভাংচুরের অভিযোগ


Deprecated: get_the_author_ID is deprecated since version 2.8.0! Use get_the_author_meta('ID') instead. in /home/ajkerbarta/public_html/wp-includes/functions.php on line 4861
প্রকাশিত: ১০:৫৮ অপরাহ্ণ, মার্চ ৫, ২০২১

মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি ॥

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলায় তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে বিরোধের জের ধরে সার্বজনীন কালি মন্দিরের প্রতিমা ভাংচুরের অভিযোগ উঠেছে। গতকাল শুক্রবার (৫ মার্চ) সকাল ১১ টার দিকে দক্ষিণ সোনাখালী গ্রামের জগদীশ মিস্ত্রির বাড়ির সামনে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় মঠবাড়িয়া থানায় ২ জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।মঠবাড়িয়া থানার মামলা নং ১৪, তারিখ ০৫.০৩.২০২১ খ্রি.।  

 

জানা গেছে,উপজেলার সোনাখালী এলাকার মোঃ কুদ্দুস প্যাদার পুত্র মোঃ কবির প্যাদা ২ বছর আগে দক্ষিণ সোনাখালী গ্রামে জমি কিনে নতুন বাড়ি তৈরি করে বসবাস করে আসছেন। সম্প্রতি তার ভগ্নিপতি মোঃ নাসির উদ্দিনও ৩ দিন পূর্বে সেখানের ক্রয়কৃত জমিতে ঘর তৈরি করে বসবাস শুরু করেন।

 

ঘটনার দিন কবির প্যাদার গৃহ পালিত ৯টি ছাগল পার্শ্ববর্তী বিজন,সঞ্জীব ও জগদীশ মিস্ত্রি গংদের কলাই ক্ষেত নষ্ট করা নিয়ে তর্ক বির্তকের এক পর্যায়ে কিছুটা হাতাহাতি হয়। এ নিয়ে গতকাল শুক্রবার সকালে কবির প্যাদার বাড়িতে স্হানীয়ভাবে শালিসি বসলে উভয় পক্ষ উত্তেজিত হয়ে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু করে।এতে একপক্ষ আরেক পক্ষের বিরুদ্ধে প্রতিমা ভাংচুরের অভিযোগ আনলে তাৎক্ষণিকভাবে থানা পুলিশ অভিযুক্ত কবির (৪৫) ও নাসিরকে (৪০) গ্রেফতার করে।

 

এ ব্যাপারে মঠবাড়িয়া থানার ওসি আ.জা.মো. মাসুদুজ্জামান জানান,”উভয় পক্ষের মধ্যে পূর্ব বিরোধ চলে আসছে।প্রতিমা ভাংচুরের ঘটনা আমলে নিয়ে ঘটনার সাথে জড়িত ২ জনকে গ্রেফতার গতকাল শুক্রবার দুপুরে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরন করা হয়েছে।”