মঠবাড়িয়ায় জমির মালিককে মিথ্যা মামলায় হাজতে পাঠিয়ে ঘর দখলের অভিযোগ

প্রকাশিত: ৩:০১ অপরাহ্ণ, জুলাই ৭, ২০২০

মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি ॥ পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় প্রবাসীকে মিথ্যা মামলা দিয়ে হাজতে রেখে দোকান ঘর দখল করে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। ভুক্তভোগী ফরিদ হাসান উপজেলার আলগী পাতাকাটা গ্রামের ফারুক আকনের পুত্র।

কাগজপত্র পর্যালোচনায় দেখা যায়, ফরিদ হাসান গং এর মিথ্যা মামলা দিয়ে জেল হাজতে পাঠানো মামলার বাদী রহমান কারিগর গং এর দাবীকৃত জমির দাগ নং ১২৬০। অন্যদিকে ফরিদ হাসান গং এর দাবীকৃত জমির দাগ নং ১২৫৭। রহমান গং পেশী শক্তি ও মিথ্যা মামলা দিয়ে ফরিদ গংদের জেল হাজতে পাঠিয়ে ফরিদ গংদের প্রাপ্য ১২৫৭ নং দাগভুক্ত ৭ টি দোকান ঘর দখল করে যা কস্মিনকালেও রহমান গং পাবে না মর্মে একাধিক প্রতিবেদনে প্রতীয়মান হয়।

মঠবাড়িয়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বরাবর অভিযোগ মর্মে সৃজিত প্রতিবেদন এবং পরবর্তীতে উপজেলা চেয়ারম্যান বরাবর অভিযোগের প্রতিবেদনে বিরোধীয় জমি ফরিদ হাসান গং এর প্রাপ্য হওয়ায় মিথ্যা মামলার বাদী রহমান কারিগর গং এর বিরুদ্ধে প্রশাসনের আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া উচিত বলে মনে করছেন এলাকাবাসী।

বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ মঠবাড়িয়া উপজেলা কমান্ড এর কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা মোঃ বাচ্চু মিয়া আকন স্বাক্ষরিত উপজেলা চেয়ারম্যান বরাবর ৩০.১২.২০১৯ খ্রি. তারিখের একটি অভিযোগের প্রেক্ষিতে অগ্রগামীকৃত ২০.০৬.২০২০ খ্রি. তারিখের একটি সালিস প্রতিবেদনে বিরোধীয় সম্পত্তির প্রকৃত হকদার মোঃ ফরিদ উদ্দিন হাসান গং বলে উল্লেখ করা হয়।