মঠবাড়িয়ায় কলেজ ছাত্রকে কুপিয়ে জখম

প্রকাশিত: ১১:২৮ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৬, ২০২০

মো. শাহজাহান, মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি ॥

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষ খলিল গং এর বিরুদ্ধে ইব্রাহীম (২৫) নামে এক কলেজ ছাত্রকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। আহত ইব্রাহীম খুলনা বিএল কলেজের মাস্টার্সের ফল প্রার্থী এবং উপজেলার দক্ষিণ মিঠাখালী গ্রামের হাবিবুর রহমানের ছেলে।

অভিযোগে জানা যায়, দক্ষিণ মিঠাখালী গ্রামের হাবিবুর রহমান গং এর সাথে ভিটা বাড়ি ও নাল সম্পত্তি নিয়ে একই এলাকার খলিল গং এর সাথে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছে। এ নিয়ে স্থানীয় পর্যায়ে একাধিকবার সালিস বৈঠক হলেও প্রতিপক্ষ খলিল গং সালিসগণের সিদ্ধান্ত অমান্য করে রবিবার সকালে ট্রাক্টর নিয়ে বিরোধীয় জমিতে চাষাবাদ করতে গেলে কলেজ ছাত্র ইব্রাহীম ও তার পিতা হাবিবুর রহমান বাধা দেন। এ সময় খলিলের নেতৃত্বে বশির, সিদ্দিক, মাসুম, আব্দুল্লাহসহ ১৫/২০ জন লাঠিয়াল বাহিনী রামদা, চাইনিজ কুঠার ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে ইব্রাহীমকে উপর্যুপরি কুপিয়ে গুরুতর জখম করে পালিয়ে যায়। স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছেন।

এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে।
দক্ষিণ মিঠাখালী মৌজার ৫৩৪ নং খতিয়ানের ১২০৫ নং দাগের ৩ একর ৯৫ শতাংশ জমির বিরোধ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে একাধিক মামলা মোকদ্দমা চলমান আছে। খলিল গং এর বিরুদ্ধে থানার জিআর মামলা নং-১৫৪ বিচারাধীন রয়েছে।

ভুক্তভোগী হাবিবুর রহমান জানান, খলিল বিডিআর থেকে চাকরিচ্যুত হয়ে এলাকায় বিভিন্ন অপকর্মের সাথে জড়িয়ে পড়েছেন। এলাকায় জমি দখলসহ বিভিন্ন প্রতারণার অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। এলাকার অধিকাংশ লোকই খলিল বাহিনীর কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছে। মিথ্যা মামলার ভয়ে কেউ মুখ খোলার সাহস পাচ্ছে না বলেও জানান তিনি।

Sharing is caring!