ভোলায় টিফিনের টাকা বাঁচিয়ে অসহায়দের শীতবস্ত্র দিল শিক্ষার্থীরা

প্রকাশিত: 9:33 AM, December 22, 2019

হঠাৎ করে ভোলায় তাপমাত্রা কমে গেছে। শনিবার (২১ ডিসেম্বর) জেলার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস বলে জানিয়েছেন ভোলা আবহাওয়া অফিসের জ্যেষ্ঠ পর্যবেক্ষক (সিনিয়র অবজারভার) মাহাবুব রহমান।

তাপমাত্রা কমার কারণে সবচেয়ে বিপাকে পড়েছেন জেলার উপকূলের নিম্নআয়ের মানুষ। এসব মানুষের পক্ষে শীতবস্ত্র কেনার টাকা না থাকায় প্রচণ্ড শীতে কাঁপছেন। অনেকেই সড়কের পাশে কষ্টে শীত নিবারণ করছেন।

এসব মানুষের কথা চিন্তা করে শীতবস্ত্র নিয়ে এগিয়ে এসেছেন ১০ জন কলেজ শিক্ষার্থী। ভোলার মনপুরা উপজেলার মনপুরা সরকারি কলেজের এসব শিক্ষার্থী টিফিনের টাকা বাঁচিয়ে শীতবস্ত্র কিনে শীতার্তদের মাঝে বিতরণ করেছেন।শনিবার বিকেলে মনপুরা উপজেলার হাজিরহাট ইউনিয়নের চর ফৈজুদ্দিন গ্রামে এসব শীতবস্ত্র বিতরণ করেন তারা।

কলেজ শিক্ষার্থী হাসিবুর রহমান শান্ত, মোবারক ও সবুজ বলেন, আমাদের মা-বাবার দেয়া টিফিনের টাকা বাঁচিয়ে গ্রামের অসহায় ও গরিব মানুষের জন্য শীতবস্ত্র কিনে তাদের মাঝে বিতরণ করেছি। শীতবস্ত্র পেয়ে অসহায় মানুষের মুখে হাসি দেখে আমাদের মনে প্রশান্তি এসেছে। এটাই আমাদের সফলতা। আমরা নাম কামানোর জন্য এমন কাজ করছি না। সমাজের নিম্নআয়ের মানুষের পাশে থেকে শীতের কষ্ট দূর করার জন্য এমন কাজে নেমেছি আমরা।তারা আরও বলেন, আমাদের এমন কাজে যদি সমাজের বিত্তবানরা সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন তাহলে আরও অনেক অসহায় এবং অবহেলিত মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করতে পারব আমরা।ভোলার জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোহাম্মদ মাসুদ আলম সিদ্দিক বলেন, শীতার্তদের মাঝে ভোলার সাত উপজেলায় সরকারিভাবে কম্বল বিতরণ শুরু হয়েছে। এ বছর ভোলার সাত উপজেলায় ৩৪ হাজার কম্বল বিতরণ করা হবে।

Share Button