ভিসির পদত্যাগই একমাত্র সমাধান, দাবি আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের

প্রকাশিত: ৫:৩০ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৯

গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর (ভিসি) প্রফেসর ড. খোন্দকার নাসিরউদ্দিনের অপসারণের এক দফা এক দাবি নিয়ে শিক্ষার্থীদের চলমান আন্দোলনের সপ্তম দিন চলছে। চলমান এ আন্দোলনের ধারাবাহিকতায় আজ মঙ্গলবার ১৪টি বিষয় উল্লেখ করে সংবাদ সম্মেলন করেছেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। তাদের দাবি, কেবল ভিসির পদত্যাগই এ বিষয়গুলোর সমাধান দিতে পারে।

ভিসির বিরুদ্ধে শেখ মুজিবুর রহমানের মুর‌্যাল নির্মাণ কাজ শরুর আগেই আড়াই কোটি টাকা নির্মাণ ব্যয় দেখানো, তুচ্ছ বিষয়ে শিক্ষার্থীদের শোকজসহ অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও অন্যায়ভাবে আট জনকে বহিষ্কার, তুচ্ছ বিষয়ে অভিভাবকদের ডেকে এনে অপমান ও গালিগালাজ, ভিসি কোটার নামে ভর্তি-বাণিজ্য ও জালিয়াতি, মাত্রাতিরিক্ত ভর্তি-ফি ও সেমিস্টার-ফি, উন্নয়নমূলক কাজে অনীহার কারণে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার, ক্যাফেটেরিয়া, বৃক্ষরোপণ ও গোবর বাণিজ্য, চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে অনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে খাটো করে দেখা, ১৫ আগস্ট সঠিকভাবে পালন না করা, এখতিয়ার বহির্ভূত বিষয়ে হস্তক্ষেপ করা, মেধাবীদের বাদ দিয়ে ইউজিসির নিয়ম-বহির্ভূতভাবে প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া ও অধিকতর কম সিজিপিএ-ধারীদের নিয়োগ দেওয়াসহ ১৪টি পয়েন্টে অভিযোগ তুলে ধরেন শিক্ষার্থীরা।

এসব কারণে বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার উপযুক্ত পরিবেশ নষ্ঠ হচ্ছে দাবি করে সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষার্থীরা বলেছেন, ভিসি নাসিরউদ্দিনের পদত্যাগই এর একমাত্র সমাধান।সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষার্থীরা বলেন, ‘পরিপূর্ণ দুর্নীতিতে নিমজ্জিত স্বৈরাচারী ভিসির নৈতিক স্খলন চরম পর্যায়ে চলে গেছে। যা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার পরিবেশকে চরমভাবে বিষাক্ত করে তুলেছে। ভিসির বন্দী-জিঞ্জির থেকে মুক্ত হওয়ার জন্য আমরা শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চালিয়ে গেলেও এ আন্দোলন বানচালের জন্য ভিসি নাসিরউদ্দিন সর্বক্ষণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। ভিসিপন্থী লোকজন নানাভাবে হুমকি-ধমকি দিয়ে আমাদেরকে কোণঠাসা করার চেষ্টা চালাচ্ছে।’

এদিকে সোমবার রাত ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক মো. হুয়ায়ুন কবির গোপালগঞ্জ সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন। তিনি আন্দোলনত শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে চার দিন আগে সহকারী প্রক্টর পদ থেকে পদত্যাগ করেছিলেন।ডায়েরিতে তিনি উল্লেখ করেন, তার নাম Humayun Kabir দিয়ে ভিসিপন্থী অজ্ঞাত ব্যক্তি বা ব্যক্তিরা ফেসবুক আইডি খুলে বিভিন্ন ধরনের উস্কানিমূলক, চারিত্রিক ও মানহানিকর খারাপ স্ট্যাটাস দিচ্ছে এবং অপপ্রচার করে বেড়াচ্ছে। শুধু তাই নয়, ওই গ্রুপটি তাকে নানা ভয়ভীতিসহ প্রাণ নাশের হুমকিও দিয়েছে। ভিসিপন্থীরা তার বড় ধরনের ক্ষতি করতে পারে বলে তিনি আশঙ্কা প্রকাশ করেন।

Sharing is caring!