ভারতে কোয়ারেন্টাইন শেষে ফিরলেন ২৩ বাংলাদেশি

প্রকাশিত: 12:27 PM, March 14, 2020

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে ভারতের রাজধানী দিল্লিতে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকার পর দেশে ফিরেছেন ২৩ বাংলাদেশি। শনিবার (১৪ মার্চ) বিকেল ৩টার দিকে তাদের বহনকারী এয়ার ইন্ডিগোর একটি ফ্লাইট হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে।

শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করে। সূত্র জানায়, দেশে ফিরে তারা বাড়ি চলে গেছেন। সাংবাদিকদের সঙ্গে কথাও বলেছেন।

এর আগে সকালে দিল্লির ইন্দিরা গান্ধী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তাদের বিদায় জানান ভারতে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার মোহাম্মদ ইমরান। শিক্ষার্থীরা এ সময় বাংলাদেশ সরকারের আর্থিক সহযোগিতা এবং সার্বিক ব্যবস্থাপনার জন্য দিল্লি ও বেইজিং দূতাবাসের কর্মকর্তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

এদিকে বার্তা সংস্থা ইউএনবি জানিয়েছে, ২৩ বাংলাদেশির অধিকাংশই শিক্ষার্থী এবং তাদের সঙ্গে একটি ছোট্ট বাচ্চাসহ একটি পরিবার রয়েছে। তাদের ফিরিয়ে আনার পুরো খরচ বহন করছে বাংলাদেশ সরকার।

ঢাকায় অবস্থিত ভারতীয় হাইকমিশন জানিয়েছে, ২৭ ফেব্রুয়ারি ভারতীয় বিমান বাহিনীর একটি বিশেষ বিমানে অন্যান্য ভারতীয়দের সঙ্গে এই ২৩ বাংলাদেশিকে উহান থেকে ফিরিয়ে আনা হয়। এরপর তাদের দিল্লিতে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত করা হয়। বর্তমানে বিশ্বের অন্তত ১২৫টি দেশ ও অঞ্চলে করোনার প্রকোপ ছড়িয়ে পড়েছে। এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে পাঁচ হাজার ৪৫৬ জনে।

চীনে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে মাত্র চারজন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়েছেন এবং মারা গেছেন একজন। এ নিয়ে দেশটিতে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে তিন হাজার ১৭০ জন।

করোনার তাণ্ডব চলছে ইউরোপের দেশগুলোতে। ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড সর্বোচ্চ ২৫০ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে ইতালিতে। এ নিয়ে দেশটিতে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে এক হাজার ২৬৬ জন।

এ পর্যন্ত ৩১২ বাংলাদেশি নাগরিককে চীন থেকে ফিরিয়ে আনা হয়েছে। গত ১ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ বিমানের একটি বিশেষ ফ্লাইটে তাদের ফিরিয়ে আনা হয়। বাকিদেরও ফিরিয়ে আনার প্রক্রিয়া চলছে। দেশে ফিরে আসতে তারা নাম নিবন্ধন করেছেন।

Share Button