ব্যায়াম করাই ‘শখ’ অবিশ্বাস্য পেশির এই নারী চিকিৎসকের

প্রকাশিত: ৬:৪৪ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৩, ২০১৯

চীনের চিকিৎসক ইউয়ান হেরোং মাত্র ৩০ বছর বয়সেই ইন্টারনেটের  কল্যাণে বিশ্বের কোটি কোটি মানুষের কাছে পরিচিতি পেয়েছেন। অবিশ্বাস্য পেশি বানানোর খ্যাতি পাওয়া এই চিকিৎসক জানালেন গোপন রহস্য। বললেন, ব্যায়াম করা তার ‘শখ’।

ব্রিটিশ গণমাধ্যম দ্য ডেইলি মেইল জানায়, শারীরিকভাবে সবল হওয়ার লক্ষ্যে ইউয়ান হেরোং মাত্র দুই বছর আগে ব্যায়াম করা শুরু করেন। তিনি সপ্তাহে পাঁচ দিন ব্যায়াম করতে থাকেন। তার কঠোর ব্যায়াম অনুশীলনের ফলে দ্রুতই শরীর থেকে মেদ ঝরিয়ে ফেলতে পারেন। এসব ছবি তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করলে দ্রুতই তার ফলোয়ার সংখ্যা বাড়তে থাকে।

সুন্দর দেহের অধিকারী এ চিকিৎসক বলেন, ‘আমি শখের বশে কোনো চিকিৎসা ছাড়াই ব্যায়াম করি।’ ভক্তদের উদ্দেশে তিনি তার ব্যায়ামের ভিডিও তৈরি করেছেন যেখানে তাকে ভারত্তোলন, পুল আপ, মাসল স্ট্র্যাচিংসহ নানা ব্যায়াম করতে দেখা যায়।ইউয়ান হেরোং মডেলিং করেন। তিনি পেশাদার ‘বডিবিল্ডার’দের প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন। ব্যায়াম নিয়ে তার খ্যাতি যতই বাড়ুক না কেন তিনি চিকিৎসা পেশা ছাড়বেন না বলে জানান। তিনি তার কঠিন ব্যায়ামের তালিকাও প্রকাশ করেছেন।

অনলাইন সেনসেশন ইউয়ান হেরোং চিকিৎসক পরিবারে জন্মগ্রহণ করেছেন। তার বাবা-মা তাকে চাইনিজ কুং ফু কারাতে শেখাতে চেয়েছেন এবং যাতে ভবিষ্যতে জীবিকা নির্বাহ করতে পারেন সেজন্য চীনের প্রথাগত চিকিৎসা শাস্ত্র পড়ান।  ছুটির দিনে ফটোশ্যুট ও টিভি রেকর্ডিং করতে পছন্দ করেন হেরোং। তার স্বামীও একজন চিকিৎসক। তিনি তার স্বামীর জন্য চীনের প্রথাগত ওষুধের রেসিপি ব্যবহার করে রান্না করতে পছন্দ করেন।

অনেক সমালোচক হেরোংয়ের আচরণকে ‘অ-নারীসুলভ’ বলে সমালোচনা করেন। কিন্তু তিনি নিজেকে সমালোচকদের থেকে দূরে রাখেন। তিনি বলেন, ‘কে কী বলল তাতে কিছু যায় আসে না। আমি পাত্তা দেই না। আমি ফিটনেসের প্রতি অন্ধ একজন মানুষ। আমি সুখে আছি, এটাই আসল কথা।’

Sharing is caring!