বেস্ট টিম ভোমরার লিডার মাসুদ ধর্ষণ-ব্ল্যাকমেইল মামলায় গ্রেফতার


Deprecated: get_the_author_ID is deprecated since version 2.8.0! Use get_the_author_meta('ID') instead. in /home/ajkerbarta/public_html/wp-includes/functions.php on line 4861
প্রকাশিত: ৬:৫৬ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৮, ২০২০
সরদার আবু সাইদঃ
সাতক্ষীরা’র ভোমরায় বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ এবং অশ্লীল ছবি ও ভিডিও ধারণ করে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে বেস্ট টিম সাতক্ষীরা’র ভোমরা ইউনিয়ন টিম লিডার মাসুদ হোসেন নামের এক যুবককে আটক করেছে সাতক্ষীরা সদর থানা পুলিশ। ওই যুবক ভোমরা লক্ষ্মীদাড়ী এলাকার শহিদুল ইসলামের পুত্র। রোববার নিজ বাড়ি হতে মাসুদকে আটক করে পুলিশ।
মামলা সূত্রে জানা গেছে, ভোমরা লক্ষ্মীদাড়ী এলাকার এইচএসসি দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী কয়েক মাস পূর্বে তার চাচার বাড়িতে বেড়াতে যায়। ২৭ মে ২০১৯ এবং ৩ ডিসেম্বর ১৯ তারিখে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একই এলাকার মাসুদ তার কন্যাকে ধর্ষণ করে। সে সময় কৌশলে কন্যার আপত্তিকর ছবি ও ভিডিও ধারণ করে ওই লম্পট মাসুদ। পরে ওই ছবি ও ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ভুক্তভোগী কন্যার পিতার কাছে ১লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করে। সে সময় ৩০ হাজার টাকা দিয়ে কিছু ছবি দিলেও পরবর্তীতে আবারো ৫০ হাজার টাকা দাবি করে-না দিলে ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেয়। এবিষয়ে তার বড় ভাইয়ের কাছে অভিযোগ দিলে তিনিও চাঁদা টাকার জন্য চাপ দিতে থাকেন।
একপর্যায়ে ওই লম্পট মাসুদের দাবিকৃত টাকা না দেওয়ায় ওই ছবি ও ভিডিও ইন্টারনেটসহ বিভিন্ন এ্যাপসে ছড়িয়ে দিতে থাকে। উপায়ন্তর হয়ে ভুক্তভোগী কন্যার পিতা বাদী হয়ে গত ২৬ জুলাই ২০২০ সাতক্ষীরা সদর থানায় নারী নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। যার নং ৯০। উক্ত মামলায় পুলিশ অভিযুক্ত মাসুদকে আটক করে। এঘটনায় ভুক্তভোগীর পরিবার ওই লম্পটের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।