বামনায় ইউপি সদস্যের নাবালক ছেলে বিবাহিত মেয়েকে নিয়ে উধাও : অবশেষে উদ্ধার

প্রকাশিত: ৮:৩৭ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ১৪, ২০২০

তরিকুল ইসলাম রতন, বরগুনা প্রতিনিধি ॥ বরগুনার বামনা উপজেলার ডৌয়াতলা ইউনিয়নের এক ইউপি সদস্যের নাবালক ছেলে বিবাহিত এক মেয়েকে নিয়ে উধাও হয়েছে। এই নাবালক ছেলের কাণ্ডে বিপাকে পড়েছেন ঐ ইউপি সদস্য।

বামনা উপজেলার ডৌয়াতলা ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য লুৎফা বেগমের ১৭ বছর বয়সী ছেলে সৌরভ একই ইউনিয়নের এক পূত্রবধুকে নিয়ে পালিয়েছে।

পরে তাদেরকে বরগুনা থেকে উদ্ধার করা হলেও ছেলের বিধিসম্মতভাবে বিয়ের বয়স না হওয়া বিপাকে পড়েছেন ছেলের অভিভাবক।
বামনার উপজেলা চেয়ারম্যান ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের দ্বারস্থ হলেও কোনে সুরাহা এখন পর্যন্ত মেলেনি। অপরদিকে বিবাহিত মেয়ে অপ্রাপ্তবয়স্ক ছেলের হাত ধরে পালিয়ে যাওয়ায় বিব্রত মেয়ের পরিবার।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বামনার ডৌয়াতলার ৬ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য লুৎফা বেগমের ছেলে সৌরভ (১৭) একই এলাকার হালিমের বিবাহিত মেয়ে মাসুমার সাথে (১৮) প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে যায়।

গত শনিবার বিকেলে নাবালক ছেলে সৌরভের সাথে মাসুমা পালিয়ে যায়। পরে তাদের বরগুনা সদর উপজেলার ডালভাঙা থেকে ছেলে পক্ষ উদ্ধার করে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমানের কাছে নিয়ে আসে। কিন্তু চেয়ারম্যান তাদের কোনো সমাধান দিতে পারেননি।

ছেলের মা লুৎফা বেগম সমাধানের জন্য নিরুপায় হয়ে বামনা উপজেলা চেয়ারম্যান সাইতুল ইসলাম লিটু মৃধার কাছে তাদেরকে নিয়ে গেলেও চেয়ারম্যান আইনগত বিপত্তির কারণে তাদের সমাধান দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন।

ছেলের মা ইউপি সদস্য লুৎফা বেগম বলেন, এমন কা- ঘটানোর পর মেয়েকে গ্রহণ করতে অস্বীকৃতি জানায় মেয়ের পরিবার। মেয়েও ওই ছেলেকে ছেড়ে যেতে নারাজ। ফলে বাধ্য হয়েই মেয়েকে নিজের তত্ত্বাবধানে রেখেছি।

এবিষয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান মিজান বলেন, ছেলে অপ্রাপ্ত বয়স্ক হওয়ায় মেয়ের সাথে বিয়ে দেওয়া সম্ভব হয়নি। তাছাড়া ওই মেয়ের আগের স্বামী আছে তা এখনও বিচ্ছেদ হয়নি।

তিনি আরও বলেন, এই মেয়েকে তার পরিবারের কাছে ফিরে যেতে বলা হয়েছে কিন্তু সে কিছুতেই যেতে রাজি নয় বরং সে আত্মহত্যার হুমকি দিয়েছে। এসব কারণে তাদের সমস্যা সমাধান করা সম্ভব হয়নি।