বাবুগঞ্জে প্রতিপক্ষের বাড়ি-ঘরে হামলা, ভাংচুর লুটপাটের অভিযোগ

প্রকাশিত: ৭:২৯ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৮, ২০২০

আরিফ হোসেন ফরাজি, বাবুগঞ্জ প্রতিনিধি :

বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলায় জমি সংক্রান্ত পূর্ব বিরোধের জের ধরে বসত ঘরে হামলা চালিয়ে প্রতিপক্ষের ঘর বাড়ি ভাংচুর করা হয়েছে। এ সময় হামলাকারীরা ঘরের মালামাল লুটপাট ও মহিলাদের শ্লীলতাহানী ঘটায় বলে অভিযোগ উঠেছে। বুধবার সকালে উপজেলার কেদারপুর ইউনিয়নের পূর্ব ভূতের দিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কেদারপুর ইউনিয়নের পূর্ব ভূতেরদিয়া গ্রামের হাবিব ফকির ও মিনু বেগমের পরিবারের সঙ্গে একই গ্রামের কালাম, রোকন, রব ও সেলিম চাপরাশি গং এর প্রায় ২/৩ বছর ধরে ৩৮ শতাংশ জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলছিলো। ওই জমি নিয়ে আদালতে একাধিক মামলা ও স্থানীয় ভাবে সালিস বৈঠক বসলেও কোনো সুরাহা হয়নি।

বুধবার সকাল ১০ টার দিকে হাবিবুর রহমান ফকিরের স্ত্রী গৃহকর্ত্রী হিনু বেগম অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে থাকার সুবাদে তালাবদ্ধ ঘরে কালাম, রোকন, রিপন, রবি, খোকন ও সেলিমের নেতৃত্বে ৩০/৪০ জন ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে হামলা ভাংচুর ও ঘরে থাকা আসবাবপত্র লুটপাট করে নিয়ে যায়। এ সময় ঘরে থাকা দুই লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুটপাট করে নিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা।

বসতঘরে ব্যাপক ভাংচুর করে ঘর থাকার স্থান নিশ্চিহ্ন করে দেয়। পাশাপাশি হামলাকারীরা লুটপাট ও অন্য মহিলারা এগিয়ে আসলে তাদের শ্লীলতাহানী ঘটায়। খবর পেয়ে বাবুগঞ্জ থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছালে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।

খবর পেয়ে দুপুরে হাসপাতাল থেকে ছুটে আসেন হিনু বেগম। এ সময় তিনি সাংবাদিকদের বলেন, হামলাকারীরা শুধু আমাদের বাড়ি ঘরই ভাংচুর করেনি। তারা আমাদের টাকা পয়সা, স্বর্ণালঙ্কার লুট করে এবং আমাদের ঝি-বৌদের গায়ে হাত দিয়ে শ্লীলতাহানী ঘটিয়েছে।

হামলার ব্যাপারে বাবুগঞ্জ থানার ওসি মিজানুর রহমানের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, কেদারপুর ইউনিয়নের পূর্ব ভূতের দিয়া গ্রামে হামলাকারীরা বসত ঘরে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করেছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেছে। ক্ষতিগ্রস্তদের পক্ষ থেকে থানায় অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
এ ব্যাপারে ক্ষতিগ্রস্তদের পক্ষ থেকে বাবুগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে।

Sharing is caring!