বানারীপাড়ায় মানসিক ভারসাম্যহীন নারীকে ঘীরে ছড়িয়ে পড়ে “কল্লাকাটা” আতঙ্ক,

প্রকাশিত: 3:23 PM, July 8, 2019

বানারীপাড়ায় মানসিক ভারসাম্যহীন রিমা (৩৫) নামের এক নারীকে ঘীরে চারদিকে “কল্লাকাটা” আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে হুলস্থুল পরিস্থিতির সৃষ্ঠি হয়।সোমবার সকাল ১০টার দিকে বানারীপাড়া পৌর শহরে বন্দর মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে এক নারীকে ঘুরতে দেখে অভিভাবকদের মাঝে সন্দেহের সৃষ্টি হয়।

তারা ওই নারীকে আটক করে গণপিটুনি দেওয়ার চেষ্টা করলে খবর পেয়ে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। তাৎক্ষনিক এ ঘটনায় চারদিকে “কল্লাকাটা” নারী আটকের গুজব ছড়িয়ে পড়ে। মুহূর্তের মধ্যে অভিভাবক সহ শত শত মানুষ বন্দর মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও থানার সামনে গিয়ে ভিড় জমায় এবং সেখানে উত্তেজনাকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খলিলুর রহমান,উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা ডা. খোরশেদ আলম সেলিম,পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি সুব্রত লাল কুন্ডু, বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি জাহিদ হোসেন জুয়েল,আ’লীগ নেতা শামসুল আলম মল্লিক ও বানারীপাড়া প্রেসক্লাব সভাপতি রাহাদ সুমন বিদ্যালয়ে ছুঁটে যান।এসময় ওসি খলিলুর রহমান অভিভাবদের উদ্দেশ্যে বলেন ওই নারী একজন মানসিক ভারসাম্যহীন

রোববার রাত পৌনে ১টার দিকে সে তাকে চাখার বাজারে পাগলের আচরণ করে হাটতে দেখেছেন। এসময় ওসি “গুজবে” কান না দেওয়ার জন্য সবার প্রতি আহবান জানিয়ে অভিভাবকদের পক্ষ থেকে ৪/৫জনকে থানায় গিয়ে ওই নারীর সঙ্গে কথা বলে এর সত্যতা যাচাইয়ের জন্য বলেন। পরে কয়েকজন নারী অভিভাবক থানায় গিয়ে ওই নারীর সঙ্গে কথা বলে বুঝতে পারেন সে সত্যিকারেরই একজন মানসিক ভারসাম্য হীন নারী। পরে সব সন্দেহের অবসান ঘটে।

তবে এনিয়ে দিনভর না গুজব ছড়ানো অব্যাহত থাকে। এদিকে থানার ওসি (তদন্ত) জহিরুল ইসলাম জানান, তিনি খোঁজ নিয়ে জানতে পেরেছেন ওই নারীর বাড়ির বাকেরগঞ্জের বোয়ালিয়া বাজার এলাকায় এবং সে ওই এলাকার মৃত জাকির হোসেন হাওলাদারের মেয়ে। মানসিক ভারসাম্যহীন হওয়ায় তার স্বামী তাকে ডির্ভোস দেওয়ার পর থেকে সে পথে পথে ঘুরে বেড়াচ্ছে।মানসিক ভারসাম্যহীন হওয়ায় অভিভাবকরা তাকে নিতে রাজী না হওয়ায় সমাজসেবা অফিসের মাধ্যমে তাকে সেভ হোমে দেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে বলেও তিনি জানান।

Share Button