বানারীপাড়ায় মাদকের বিরুদ্ধে ওসি’র যুদ্ধ ঘোষণা, ৬ মাদক কারবারি গ্রেফতার


Deprecated: get_the_author_ID is deprecated since version 2.8.0! Use get_the_author_meta('ID') instead. in /home/ajkerbarta/public_html/wp-includes/functions.php on line 4861
প্রকাশিত: ৪:৩৫ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২, ২০২০

রাহাদ সুমন,বানারীপাড়া (বরিশাল) প্রতিনিধি ॥

চৌকস ইন্সপেক্টর মো. হেলাল উদ্দিন বানারীপাড়া থানায় অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হিসেবে যোগদানের পরে সন্ত্রাসী, মাদক কারবারি ও সেবীদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছেন। গত এক সপ্তাহে তাঁর দূরদর্শী নেতৃত্বে পৌর শহর সহ উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় মাদক বিরোধী বিশেষ অভিযান চালিয়ে ৬ চিহ্নিত মাদক কারবারী, সেবী ও ৬ মাসের সাজাপ্রাপ্ত এক পলাতক আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

১ সেপ্টেম্বর রাত সাড়ে ৮টায় উপজেলার সলিয়াবাকপুর ইউনিয়নের কৃষ্ণপুর গ্রামের মোঃ আল আমিন (২৬) ও চৌয়ারীপাড়া গ্রামের মোঃ শাকিল হাওলাদার (২২) কে ৫০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট সহ চৌয়ারীপাড়া হাসিনা মোর্শেদ বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সামনে থেকে, ২৭ আগস্ট রাত ৮টায় দশ গ্রাম গাঁজাসহ পৌর শহরের ৫ নং ওয়ার্ডের মোঃ মেহেদী হাসান ইমরান (২৩) ও ৩ নং ওয়ার্ডের অভি শীল(১৯)কে সলিয়াবাকপুর ইউনিয়নের নরোত্তমপুর গ্রামের হাওলাদার বাড়ির পুকুর পাড় থেকে এবং ২৮ আগস্ট রাত ৯টায় উপজেলার সদর ইউনিয়নের রাজ্জাকপুর গ্রামের মোঃ মিজান ডাকুয়া (৪২) ও গাভা গ্রামের মোঃ রাব্বি শেখকে (১৮) ২০ গ্রাম গাঁজাসহ রায়েরহাট ব্রিজের দক্ষিণ প্রান্তের ঢাল থেকে গ্রেফতার করা হয়।

এ ঘটনায় বানারীপাড়া থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে পৃথক তিনটি মামলা দায়ের করে আসামীদের বরিশাল জেলহাজতে পাঠানো হয়। এদিকে উপজেলার উত্তরকুল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে অপহরণ করে বরিশালে হোটেলে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে ৩১ আগস্ট বিকালে তিনজনকে সুনির্দিষ্ট ও ৩ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামী করে থানায় মামলা নেওয়ার পাশাপাশি ভিকটিমকে উদ্ধার করে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ওসিসিতে পাঠানো হয়।

এছাড়া ২৮ আগস্ট রাত ১১টার দিকে উপজেলার মহিষাপোতা গ্রামে অভিযান চালিয়ে একটি জিআর মামলায় ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডভুক্ত পলাতক আসামী স্বজল মলি¬ক(২৮) গ্রেফতার করা হয়। এদিকে মাদক কারবারিদের বিরুদ্ধে একের পর এক অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করে মাদকদ্রব্য আইনে মামলা নেওয়াসহ বানারীপাড়াকে সন্ত্রাস, মাদক ও ইভটিজিংমুক্ত করে শান্তির জনপদে রূপান্তর করতে তিনি যোগদানের পর থেকেই সাংবাদিক, রাজনীতিক,জনপ্রতিনিধি,শিক্ষক ও ব্যবসায়ী সহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষের সঙ্গে মতবিনিময় সভা অব্যাহত রেখেছেন।

তার এ ইতিবাচক কর্মকাণ্ডে তিনি সর্ব মহলে প্রশংসিত হচ্ছেন। এ প্রসঙ্গে বানারীপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. হেলাল উদ্দিন বলেন, মাদকসেবী, ব্যবসায়ী, জঙ্গি, সন্ত্রাসী ও ইভটিজারসহ অপরাধীদের ঠাঁই বানারীপাড়ার মাটিতে হবে না। এদেরকে সমূলে নির্মূল করে এলাকায় শান্তি প্রতিষ্ঠা করা হবে।

চিত্র : বানারীপাড়া থানার ওসি

প্রসঙ্গত, গত ২৬ আগস্ট সকালে চৌকস ইন্সপেক্টর মো. হেলাল উদ্দিন বানারীপাড়া থানায় অফিসার ইনচার্জ হিসেবে যোগদান করেন। এর আগে তিনি উজিরপুর থানায় ইন্সপেক্টর (তদন্ত) হিসেবে তিন বছর সততা ও কর্তব্যনিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করে প্রশংসা ও সুনাম অর্জন করেন। ওসি হিসেবে বানারীপাড়া থানা তার প্রথম কর্মস্থল। তিনি টানা চার বার বরিশাল রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ তদন্ত কর্মকর্তা নির্বাচিত হওয়ার গৌরব অর্জন করেছেন।