বানারীপাড়ায় প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে বালিকা বিদ্যালয়ের মালামাল আত্মসাতের অভিযোগ

প্রকাশিত: ৬:৩৮ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২০

রাহাদ সুমন বানারীপাড়া (বরিশাল) প্রতিনিধি ::

বানারীপাড়ায় চাখার ইউনিয়নের সোনাহার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে একই ক্যাম্পাসের বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মালামাল আত্মসাত ও সম্পত্তি দখলের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

জানা গেছে, গত সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮ টার দিকে উপজেলার চাখার ইউনিয়নের সোনাহার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহবুব হোসেন আহম্মদ একই ক্যাম্পাসের সোনাহার ডব্লিউ এস এম বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পুরাতন টিন-কাঠের একটি কক্ষ ভেঙে এবং আসবাবপত্র সরিয়ে সেখানে টয়লেট নির্মাণ করেন। যা বালিকা বিদ্যালয়ের পিওন মো. নাসির হোসেন দেখে বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো. নূরুল হক (৫০) কে জানালে তিনি তাৎক্ষণিক গিয়ে দেখেন পুরাতন কক্ষ ভেঙে সেখানে টয়লেট নিমার্ণ করা হয়েছে এবং পুরাতন কক্ষটিতে থাকা টিন, কাঠ, ফ্যান ও বিদ্যালয়ের সাইনবোর্ডসহ গুরুত্বপূর্ণ মালামাল নেই।

তিনি তাৎক্ষণিক প্রধান শিক্ষক ও বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতিকে জানান। পরে সোনাহার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধানশিক্ষক মাহবুব হোসেন আহম্মদের বিরুদ্ধে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, বানারীপাড়া থানার ওসি ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

এ ব্যাপারে সোনাহার বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো. নূরুল হক বলেন, দীর্ঘদিন ধরেই বিদ্যালয়ের সরকারি সম্পত্তি দখলের পাঁয়তারা করে আসছিলেন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহবুব হোসেন আহম্মদ। কিন্তু মহামারী করোনাকালীন দীর্ঘ সময়ে সারাদেশের মতো আমাদের বিদ্যালয়টি বন্ধ থাকার সুযোগ নিয়ে প্রধানশিক্ষক আহম্মদ পুরনো কক্ষটি ভেঙে তার মধ্যে থাকা মালামাল আত্মসাত করে সেখানে একটি টয়লেট নির্মাণ করেন।

এদিকে মোবাইল বন্ধ থাকায় এ ব্যাপারে সোনাহার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সহ-সভাপতি মাহবুব হোসেন আহম্মদের বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

Sharing is caring!