বাকেরগঞ্জের অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা

প্রকাশিত: ১১:০৯ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৪, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বাকেরগঞ্জের লক্ষ্মিপাশা কবাই ইউনিয়নের ইসলামিয়া ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ শহিদুল ইসলামের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনে ফাতেমা আক্তার গতকাল সকালে শহীদ আবদুর রব সেরনিয়াবাত বরিশাল প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত অভিযোগে ফাতেমা আক্তার বলেন, মাছুয়াখালী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একজন খণ্ডকালীন স্বাস্থ্যকর্মী হিসেবে নিয়োজিত রয়েছি আমি। ২০১৮ সনের ২২ মার্চ প্রশিক্ষণ নেবার জন্য স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স আসি। বাড়ি ফেরার পথে কলেজ অধ্যক্ষর সাথে পরিচয় হয়। আমার মোবাইল নম্বরটি সংগ্রহ করেন। পরে বিভিন্ন সময়ে বিয়ের প্রস্তব দিয়ে দীর্ঘ কয়েক বছর কথা বলতে থাকেন।

সম্পর্কের কারণে তিনি আমাকে নিয়ে বরিশাল, পটুয়াখালী ও কুয়াকাটার বিভিন্ন হোটেলে রাত্রি যাপন করেন। যার ফলে আমি অন্ত:সত্ত্বা হয়ে পড়েন। বিষয়টি জানার পর দুমকি নিয়ে গর্ভপাত করান। পরে বিয়ের কথা বললে তিনি অপারগতা প্রকাশ করেন। পরে বাকেরগঞ্জ থানায় মামলাটি করেন ফাতেমা আক্তার। মামলা করার পর তদন্ত কর্মকর্তা মোঃ মমিন উদ্দিন মামলার বাদীকে কোন প্রকার সহযোগিতা করেননি এবং তিনি আসামীকে গ্রেফতার করার কোন চেষ্টা করেন নি।

বাদীর প্রশ্ন ধর্ষণ মামলায় আসামী কি করে ঘুরতে পারে?

Sharing is caring!