বরিশাল প্রেস ক্লাবের আজীবন সদস্য এ্যাড. কাইউম এর স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত: ৮:২২ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৬, ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার ॥ শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত বরিশাল প্রেসক্লাবের আজীবন সদস্য, প্রতিষ্ঠাকালীন সময় থেকে একাধিকবারের সভাপতি ও সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মহিউদ্দিন আব্দুল কাইউম’র স্মরণে সভা হয়েছে। শনিবার সকালে প্রেসক্লাবে ওই স্মরণ সভা হয়। সভায় প্রতিথযশা সাংবাদিকের কর্মময় জীবনের কর্মকা-ের স্মৃতিচারণ করেন তার সান্নিধ্য পাওয়া প্রেসক্লাবের প্রবীণ সদস্যরা। তার কীর্তিময় কর্মকাণ্ড নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরে ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য তার স্মৃতি ধরে রাখতে স্মরণিকা প্রকাশের প্রস্তাব দিয়েছেন সহকর্মীরা। এছাড়াও তার জীবন কর্ম তুলে ধরে একটি মিলনায়তনের নাম তার নামে করার প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। স্মরণ সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি এ্যাড. মানবেন্দ্র বটব্যাল।

 

সভায় সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক কাজী মিরাজ। বক্তব্য রাখেন প্রেসক্লাবের সভাপতি এ্যাড. মু. ইসমাইল হোসেন নেগাবান মন্টু, কার্যকরী পরিষদের সদস্য নুরুল আলম ফরিদ, এ্যাড নজরুল ইসলাম চুন্নু, বরিশাল রিপোর্টার্স ইউনিটির সাবেক সভাপতি মো. আনিসুর রহমান স্বপন, দৈনিক ইনকিলাবের বিশেষ প্রতিবেদক নাসিম উল আলম, সিনিয়র সাংবাদিক আব্দুল হালিম, কাজী মকবুল হোসেন, মনিরুল আলম স্বপন, কামাল মাসুদুর রহমান। স্মরণ সভায় মোবাইল ফোনে প্রথিতযশা সাংবাদিক মহিউদ্দিন আব্দুল কাইউম’র কন্যা চিকিৎসক লিপিকা আক্তার লুনা বলেছেন, বরিশাল প্রেসক্লাবের প্রতি তার বাবার প্রচ- ভালোবাসা ছিল। তিনি সব সময় পুরনো সঙ্গীদের কথা মনে করতেন। তাদের নিজের পরিবারের সদস্য হিসেবে ভাবতেন। বরিশাল প্রেসক্লাবের প্রতি অকৃত্রিম ও নি:স্বার্থ ভালোবাসার মানুষ তার বাবার রুহের মাগফেরাত ও দোয়া কামনা করেছেন কন্যা লিপিকা আক্তার লুনা। সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন, প্রেসক্লাবের সাবেক সহ-সভাপতি কাজী আল- মামুন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এম মোফাজ্জেল, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক সুখেন্দু এদবর, দপ্তর সম্পাদক নাসিরউদ্দিন, সদস্য কেএম নয়ন, প্রেসক্লাব সদস্য জাকির হোসেন, আনিসুর রহমানসহ বর্তমান প্রজন্মের তরুণ সংবাদকর্মীরা।

 

প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি এ্যাড. মানবেন্দ্র বটব্যাল বলেন, মরহুম মহিউদ্দিন আব্দুল কাইউম শুধু একজন প্রথিতযশা সাংবাদিক ছিলেন না, তিনি সুপ্রিম কোর্টের স্বনামধন্য আইনজীবী ছিলেন। ছাত্র জীবনে বাম রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন তিনি। তার এক সময়ের ঘনিষ্ঠজন বর্ষিয়ান রাজনীতিবিদ, প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি প্রবীণ সাংবাদিক ও আইনজীবী এ্যাড মানবেন্দ্র বটব্যাল মরহুম মহিউদ্দিন আব্দুল কাইউমের কর্মময় জীবনের কথা তুলে ধরতে গিয়ে আবেগ আপ্লুত হয়ে পড়েন। তার প্রতি শ্রদ্ধা ও ভালোবাসর কথা তুলে ধরে এ্যাড. মানবেন্দ্র বটব্যাল বলেছেন, আইন পেশার জন্য ৯০ সালে বরিশাল ছেড়ে ঢাকায় চলে যান মরহুম আ. কাইউম। তিনি চলে যাওয়ার পর প্রেসক্লাবের তার সভাপতির চেয়ারে বসেননি তিনি। কিন্তু নিয়ম পালন করতে হয়। তাই সভাপতি করেছেন মুক্তিযোদ্ধা নুরুল আলম ফরিদকে।

 

মনপ্রাণ উজাড় করে সহকর্মীদের সকল ধরনের সহযোগিতা করতে জানিয়ে এ্যাড মানবেন্দ্র বটব্যাল জানান, তখন সকল পত্রিকায় একই রকম সংবাদ প্রকাশ হতো। তাই সহকর্মীদের নিউজ তিনি (এ্যাড. কাইউম) লিখে দিতেন। প্রেসক্লাবের জমি ক্রয়ে অর্থ সহায়তা দিয়েছেন এ্যাড. আব্দুল কাই্উম। এ্যাড মানবেন্দ্র বটব্যাল জানান, প্রেস ক্লাবের মূল দলিলে স্বাক্ষী হিসেবে স্বাক্ষর করেছেন মরহুম এ্যাড. কাইউম, তিনি নিজে (এ্যাড মানবেন্দ্র বটব্যাল) ও বর্তমান সভাপতি (এ্যাড. মু. ইমাইল হোসেন নেগাবান মন্টু)। তিনি আরো জানিয়েছেন, বরিশাল থেকে যারাই তার কাছে গেছেন। তিনি তাদের সকলের কাজ করে দিয়েছেন। তাই বর্তমান কমিটির কাছে তার স্মরণিকা প্রকাশের প্রস্তাব রেখেছেন প্রবীণ ব্যক্তিত্ব এ্যাড মানবেন্দ্র বটব্যাল।