‘বরিশাল কলেজের নাম পরিবর্তনের চেষ্টা বরিশালবাসীর বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্র’

প্রকাশিত: ৯:৫৯ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৫, ২০২০

শফিক মুন্সি ॥

সরকারি বরিশাল কলেজের নাম অপরিবর্তিত রাখার দাবিতে শনিবার (২৫ জুলাই) বরিশাল ইতিহাস ঐতিহ্য সংরক্ষণ কমিটির আহবায়ক মুফতী সৈয়দ মুহাম্মাদ ফয়জুল করীম এর আহবানে শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত বরিশাল প্রেসক্লাবে গোলটেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

গোলটেবিল বৈঠকে বরিশাল ইতিহাস ঐতিহ্য সংরক্ষণ কমিটির আহবায়ক মুফতী সৈয়দ মুহাম্মাদ ফয়জুল করীম বলেন, সরকারি বরিশাল কলেজ বরিশালের ইতিহাস ঐতিহ্যকে ধারণ করে অর্ধশতাব্দী ধরে নিজ পরিচয়ে দাঁড়িয়ে আছে। ইতোমধ্যে কলেজটি সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন করে ইতিহাসের সাক্ষী হয়ে আছে। কিন্তু হঠাৎ করে একটি কুচক্রি মহলের ইশারায় বরিশালের জেলা প্রশাসক গত ২৯ ফেব্রুয়ারি সরকারি বরিশাল কলেজকে ‘মহাত্মা অশ্বিনী কুমার দত্ত সরকারি কলেজ’ নামকরণের প্রস্তাব শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছেন।

তিনি বলেন, এটা বরিশালবাসীর বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্র। আমরা যেকোন মূল্যে এটা কঠোর হস্তে প্রতিহত করবো। আমরা সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি, আগামী মাসের মধ্যে এর সুষ্ঠু ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে বরিশালবাসীকে সাথে নিয়ে কঠোর আন্দোলন কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবো।

এসময় অন্যান্য বক্তারা বলেন, বরিশালে সাম্প্রদায়িকতার বিষবাষ্প ছড়িয়ে দিতেই একটি কলেজের নাম পরিবর্তন নিয়ে এত কাণ্ড। যেখানে এত বছরেও কেউ এই বিষয় নিয়ে কথা বলে নি সেখানে হঠাৎ কলেজটির নাম পরিবর্তন করার পাঁয়তারা যথেষ্ট সন্দেহজনক।

তারা আরো বলেন, সরকারি বরিশাল কলেজের নাম পরিবর্তনের দাবিতে একজন রাজনীতিবিদ এই করোনাকালে শিশুদের রাস্তায় নামিয়েছে। এভাবে শিশুদেরকে রাজনৈতিক হাতিয়ার বানানো অমানবিক। একটি প্রতিষ্ঠান থেকে বরিশালের নাম মুছে দিতে চেয়ে তারা প্রমাণ করেছে বরিশালকে তারা ভালোবাসে না।

বৈঠকে আরো উল্লেখ করা হয়, সাম্প্রতিক সময়ে দেখা গেছে বিভিন্ন এলাকার সাধারণ মানুষেরা তাদের ঐতিহ্যবাহী প্রতিষ্ঠানগুলোর নাম ঐ এলাকার নামে নামকরণ করতে চায়। সেখানে বরিশালের একটি গোষ্ঠী নিজ এলাকার নাম মুছে ফেলতে চেয়ে প্রমাণ করেছে ‘বরিশাল’ নামটি নিয়ে তারা হীনমন্যতায় ভোগে। তাদের প্রতি আমাদের আহবান যদি ভালো না লাগে তবে আপনারা বরিশাল ছেড়ে চলে যেতে পারেন। কিন্তু বরিশাল কলেজের নাম আপনারা পরিবর্তন করতে পারবেন না।

বেলা তিনটায় পবিত্র কুরআন তিলাওয়াতের মাধ্যমে বৈঠকের সূচনা করা হয়। কুরআন তিলাওয়াত করেন ইসলামি শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের বরিশাল মহানগর শাখার সভাপতি মুহাঃ রেজাউল করীম।

গোলটেবিল বৈঠকে আরো বক্তব্য রাখেন ডাঃ সিরাজুল ইসলাম সিরাজী, সাংবাদিক আসাদুজ্জামান, মাওলানা সৈয়দ নাছির আহমেদ প্রমুখ। বৈঠকে বিশেষ আলোচনা করেন ,জাতীয় শিক্ষক ফোরামের বরিশাল জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মোঃ ওমর ফারুক ও সরকারি বরিশাল কলেজের সাবেক নির্বাচিত এজিএস অ্যাড. হাফিজ আহমেদ বাবলু।

উল্লেখ্য, স্থানীয় সংস্কৃতিজনদের দাবির প্রেক্ষিতে গত ফেব্রুয়ারি থেকে বরিশাল জেলা প্রশাসন কলেজটির নাম পরিবর্তনের জন্য চিঠি চালাচালি শুরু করেন উপর মহলে। গত ২৯ জুন শিক্ষা মন্ত্রণালয় কলেজটির বর্তমান নাম পরিবর্তন করে ‘মহাত্মা অশ্বিনী কুমার দত্ত সরকারি কলেজ’ নামে রাখার জন্য সুপারিশ সহ মতামত চায় বরিশাল শিক্ষা বোর্ডের কাছে। এসব গোপনীয় প্রশাসনিক বিষয় নিয়ে তেমন কোন উচ্চবাচ্য ছিল না বরিশালে। এ ব্যাপারে বাংলাদেশের সর্বাধিক প্রচারিত আঞ্চলিক দৈনিক পত্রিকা ‘আজকের বার্তা’ সর্বপ্রথম গত ৫ জুলাই ‘পাল্টে যাচ্ছে সরকারি বরিশাল কলেজের নাম’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ করে। এর পরই প্রতিষ্ঠানটির নাম পরিবর্তনের বিষয়টি সবার সামনে আসে।